বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সুপ্রিমকোর্টের রায় ব্রিটেনে সংসদ স্থগিত অবৈধ


                                         




পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক:


ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সংসদ স্থগিতের সিদ্ধান্তকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। ‘ঐতিহাসিক’ এক রায়ে মঙ্গলবার সুপ্রিমকোর্ট বলেছেন, যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়াই রানীকে সংসদ স্থগিতের পরামর্শ দেওয়া ছিল অবৈধ।
রায়ের পর দেশটির সংসদের নিম্নকক্ষের স্পিকার যত দ্রুত সম্ভব অধিবেশন চালুর ঘোষণা দিয়েছেন। অপরদিকে প্রধানমন্ত্রীর অফিস বলছে, তারা রায় পর্যবেক্ষণ করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে।
বিবিসি বলছে, চলতি মাসের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন পাঁচ সপ্তাহের জন্য সংসদ অধিবেশন স্থগিত করেন। তিনি বলেছিলেন, তার সরকারের নতুন নীতি সংসদে রানীর ভাষণের মাধ্যমে তুলে ধরার জন্য এই সময় দরকার। কিন্তু সর্বোচ্চ আদালত বলেছেন, ৩১ অক্টোবর ব্রেক্সিটের (ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়া) সময়সীমার আগে সংসদকে তার দায়িত্ব পালন থেকে বিরত রাখা ছিল ভুল পদক্ষেপ।
সুপ্রিমকোর্টের প্রেসিডেন্ট লেডি হেল রায় ঘোষণা করে বলেন, ‘ব্রিটেনের গণতন্ত্রের মৌলিক বিষয়গুলোর ওপর প্রধানমন্ত্রীর এই পদক্ষেপের প্রভাব ছিল চরম।’ তিনি বলেন, ‘ব্রিটেনের রানীকে সংসদ স্থগিত রাখার পরামর্শ দেও

য়া ছিল অবৈধ। কারণ, কোনো যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়াই এর মাধ্যমে সংসদকে তার সাংবিধানিক দায়িত্ব পালনের ক্ষমতায় বাধা দেয়া হয়েছে।’
আদালতের যুক্তি, সংসদ স্থগিতের সিদ্ধান্তের আগে সংসদ সদস্যদের মতামত নেয়া হয়নি। লেডি হেল বলেন, ‘বিচারপতিদের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত হল- সংসদ স্থগিতের এই সিদ্ধান্ত বাতিল এবং এর কোনো কার্যকারিতা নেই। পরবর্তীতে কী হবে সে সিদ্ধান্তের ভার হাউস অব কমন্স এবং হাউস অব লর্ডসের স্পিকারদের।’
আদালতের রায়কে স্বাগত জানিয়ে হাউস অব কমন্সের স্পিকার জন বারকাউ বলেছেন, আর কোনো দেরি না করে পার্লামেন্ট বসবে। জরুরি ভিত্তিতে দলগুলোর নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন তিনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only