রবিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ঢাক বাজিয়ে আগমনীর আহ্বান শতাব্দীর



দেবশ্রী মজুমদার

পুজোর ক'দিন কলকাতাতে কাটাবেন বীরভূম লোকসভার সাংসদ শতাব্দী রায়। তবে মাঝে একদিন আসবেন বোলপুরের এক পুজো উদ্বোধনে। যেহেতু বীরভূমের সাংসদ পুজোয় থাকছেন না। রবিবার বিকেলে কলকাতা ফিরছেন। তাই রামপুরহাট নবীন ক্লাব পুজো উদ্যোক্তারা তাঁকে মূর্তি দেখার আমন্ত্রণ জানান। সেই ডাকে সাড়া দিয়ে মূর্তি দেখেন তিনি। গোল্ডেন পাড়ের নীল শাড়ি, সাথে ম্যাচিং ব্লাউজ ও কপালে বড় লাল টিপ পরে মণ্ডপে হাজির হন রূপালি পর্দার নায়িকা তথা বীরভূম লোক সভার সাংসদ শতাব্দী রায়।  বেশ কয়েকটি সেলফিও তোলেন তিনি। বেশ ভিড় হয় তাঁকে দেখতে।  তারপর ঢাকে কাঠি দিয়ে আগমনীকে আহ্বান জানান তিনি। এদিন কোনো রাজনৈতিক কথা বলার ইচ্ছে ছিল না তাঁর। তাই তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে মুকুল রায়ের অভিযোগকে ডাক করে সাংসদ বলেন, মুকুল রায় নারদা নিয়ে যদি নেত্রী বা তৃণমূলের চক্রান্ত বলে থাকেন, সেটা তাঁর ব্যক্তিগত মন্তব্য। আত্মপক্ষ সমর্থনে তাঁর কাছে হয়তো এটাই ঠিক। আর সেটা তিনিই বলতে পারেন। কারণ এর সাথে আমি যুক্ত না। তারপর পুজো নিয়েই বেশি কথা বলেন তিনি। এদিন তিনি বলেন, আগের বার মূর্তি কমপ্লিট হয়নি। এবার সেটা হয়েছে।  সকলের হয়ে মায়ের কাছে তাঁর অনুযোগ, পুজোর সময় প্রতিবার মা কেন বৃষ্টি দেন?

এদিন সকালে নলহাটি থানার বাউটিয়া পঞ্চায়েতের পানিটা গ্রামে একটি সাংস্কৃতিক মঞ্চের উদ্বোধন করেন তিনি। সাংসদ তহবিলের টাকা থেকে তিন লক্ষ টাকা দেন এই মঞ্চ নির্মাণের সাহায্যে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only