শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ক্ষমা চাইলেন নিগ্রহে অভিযুক্ত ছাত্র, মায়ের আর্তিতে সাড়া দিয়ে ক্ষমা করলেন বাবুল

ক্ষমাই পরম ধর্ম। এই আপ্ত বাক্যকে মেনে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে তাঁকে নিগ্রহে অভিযুক্ত ছাত্র দেবাঞ্জনবল্লভ চট্টোপাধ্যায়কে ক্ষমা করে দেওয়ার কথা জানালেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। অভিযুক্ত ছাত্রের মা ক্যান্সার আক্রান্ত রূপালি চট্টোপাধ্যায়ের করুণ আর্তিতে সাড়া দিয়েই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তাঁকে ক্ষমা করে দিয়েছেন জানার পরেই এদিন নিজের ফেসবুক পেজে স্টেটাস আপডেট করে বাবুলের কাছে ক্ষমা চেয়ে  অভিযুক্ত দেবাঞ্জন লিখেছেন, ‘আমার নিজেকে অপরাধী মনে হচ্ছে। আমার আচরণের জন্য আমাকে ক্ষমা করে দিন।’ 
গত বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র নিগ্রহের পরেই সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায় বর্ধমানের বাসিন্দা দেবাঞ্জনের ছবি। তাতে দেখা যায়, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর চুল ধরে টানছে সে। ছেলের কীর্তির কথা জানার পরেই কার্যত আতঙ্কে ভুগতে থাকেন দেবাঞ্জনের মা ক্যান্সার আক্রান্ত রূপালী চট্টোপাধ্যায়। ছেলের ভবিষ্যতের কথা ভেবে বাবুল সুপ্রিয়র কাছে ক্ষমা ভিক্ষাও করেন তিনি। করুণ আর্তি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি হাতজোড় করে বাবুলদার কাছে ছেলের জন্য ক্ষমা চাইছি। উনি যেন ছেলেকে পুলিশে না ধরিয়ে দেন। ওর পড়াশুনো, জীবন যেন শেষ না হয়ে যায়। বহু কষ্টে ছেলেটাকে বড় করেছি। ক্যান্সার আক্রান্ত মায়ের কথা ভেবে ছেলের অপরাধ যেন উনি ক্ষমা করে দেন।’ 
দেবাঞ্জনের মায়ের করুণ আর্তির ভিডিও নিজের ট্যুইটারে পোস্ট করে বাবুল সুপ্রিয় উদ্বিগ্ন রূপালীদেবীকে অভয় দেন, ‘চিন্তা করবেন না মাসিমা - আমি কোনো ক্ষতি করবো না আপনার ছেলের !! ওর ভুল থেকে ও শিক্ষ্য নিক এটাই চাই ! আমি নিজে কারো বিরুদ্ধে কোনো FIR তো করিইনি - কারোকে করতেও দিইনি - আপনি দুশ্চিন্তা করবেন না - তাড়াতাড়ি সেরে উঠুন মাসিমা ! আমার প্রণাম নেবেন।’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only