শুক্রবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

এনআরসিতে ঠাঁই না পাওয়া 'দেশহীন'রা কি ভোট দিতে পারবে? গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত জানাল নির্বাচন কমিশন

অসমে ১৯ লক্ষ নাগরিকের নাম বাদ গেছে নাগরিক পঞ্জি থেকে। যাঁদের নাম ভোটার তালিকায় রয়েছে, NRCতে জায়গা পায়নি, তাঁদের আপাতত ‘সন্দেহজনক' হিসেবে চিহ্নিত করা যাবে না। যতদিন না তাঁদের ‘বিদেশি' হিসেবে সিদ্ধান্ত নিচ্ছে আদালত, ততদিন তাঁরা ভোট দিতে পারবেন। নির্বাচন কমিশন একথা জানিয়েছে। অসমে সন্দেহজনক বা ‘ডি' ক্যাটিগরির নাগরিক হলেন তাঁরা, যাঁদের নাগরিকত্ব নিয়ে সংশয় রয়েছে। ১৯৯৭ সালে ওই রাজ্যে ভোটার তালিকা সংশোধন করতে গিয়ে এই ক্যাটিগরি তৈরি করে নির্বাচন কমিশন।

নাগরিক পঞ্জির পরিমার্জন প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণ করছে সুপ্রিম কোর্ট। শীর্ষ আদালত সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ১.২ লক্ষ ‘সন্দেহজনক ভোটার'-এর জন্য অপেক্ষা করতে হবে যতক্ষণ না তাঁদের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।এরপরই প্রশ্ন ওঠে, তাহলে এই ‘সন্দেহজনক ভোটার'-রা কি ভোট দিতে পারবেন না? বিশেষ করে যাঁরা এতদিন ভোট দিয়ে আসছিলেন? সেই বিষয়েই এবার মুখ খুলল নির্বাচন কমিশন।


এই পদক্ষেপ অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। কেননা, শাসক বিজেপি এবং কংগ্রেস বিশ্বাস করে, ৩১ আগস্ট প্রকাশিত নাগরিক পঞ্জি থেকে বহু বৈধ নাগরিককে বাদ দেওয়া হয়েছে। ওই তালিকায় ৩.১১ কোটি মানুষ জায়গা পেয়েছেন। বাদ গিয়েছেন ১৯ লক্ষ। হিমন্ত বিশ্ব শর্মার মতো বিজেপি নেতারাও অভিযোগ জানিয়েছেন, এসব হিন্দুদের তাড়িয়ে মুসলিমদের সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার ‘‘চক্রান্ত''।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়ে দিয়েছে, যাঁদের নাম তালিকায় নেই, তাঁরা এখনই ‘বিদেশি' বলে চিহ্নিত হবেন না। আদালতে যাওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে তাঁদের।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only