শুক্রবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

৭৪ বছর বয়সে মা হলেন অন্ধ্রের বৃদ্ধা


বয়সটা নিছকই একটা সংখ্যা মাত্র। ৭৪ বছর বয়সে সন্তানের জন্ম দিয়ে সেটাই প্রমাণ করলেন অন্ধ্রেপ্রদেশের এক বৃদ্ধা। বৃহস্পতিবার গান্টুরে যমজ কন্যা সন্তানের জন্ম দেন তিনি। চিকিৎসকদের ভাষায় এটা ‘মিরাক্যাল’। বৃদ্ধার পরিবারে এখন খুশির জোয়ার। আইভিএফ (ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন) বা টেস্ট টিউব পদ্ধতিতে সন্তানের জন্ম দিলেন তিনি। বৃদ্ধার নাম মাঙ্গায়াম্মা। এটাই এখনও পর্যন্ত ভারতে সবথেকে বেশি বয়সে সন্তান জন্ম দেওয়ার ঘটনা বলে দাবি করা হচ্ছে। এর আগে এই রেকর্ড ছিল হরিয়ানার দলজিন্দর কাউরের। ২০১৬ সালে ৭০ বছর বয়সে সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন তিনি। 
৫৭ বছর আগে পূর্ব গোদাবরী জেলার নেলাপার্থিপুরি গ্রামের বাসিন্দা ইয়ারামেশেট্টি রাজারাওয়ের সঙ্গে বিয়ে হয় মাঙ্গায়াম্মার। ইয়ারামেশেট্টি পেশায় কৃষক। বিয়ের কয়েক বছর পরও কোনও সন্তান না হওয়ায় ব্যাকুল হয়ে পড়েন ওই দম্পতি। বহু হাসপাতাল– নার্সিংহোম ঘুরে বহু ডাক্তার দেখিয়েও কোনও ফল হয়নি। বছরের পর বছর ঘুরে যায়। পার হয়ে যায় দশকের পর দশক। পূর্ব গোদাবরির এমন কোনও হাসপাতাল বাকি ছিল না যেখানে তিনি যাননি। এরপর আইভিএফ পদ্ধতিতে সন্তান লাভের চেষ্টা করেন তাঁরা। সেইমতো চেন্নাইয়ের একটি নামি হাসপাতালেও যান তাঁরা। সেখানে চেষ্টা করেও কোনও ফল হয়নি। তবু হাল ছাড়েননি তাঁরা। ডা. সানাক্কায়ালা উমাশংকর নামে গুন্টুরের এক আইভিএফ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের স্মরণাপন্ন হন তাঁরা। সেই চিকিৎসকের হাত ধরেই এল সাফল্য। মাঙ্গায়াম্মা জানাচ্ছেন– এতদিনে তাঁর স্বপ্নপূরণ হল। খুশিতে মিষ্টি বিতরণ করতে দেখা যায় রাজারাওকে।   




  




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only