রবিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

শিশুমৃত্যুকাণ্ডে এবার সিবিআই তদন্তের দাবি চিকিৎসক কাফিল খানের

সরকারি হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে শিশুমৃত্যুর ঘটনায় অভিযোগ থেকে রেহাই পেয়েছেন ডা. কাফিল খান। তদন্ত কমিটির রিপোর্টে তাঁকে নির্দোষ ঘোষণা করা হয়েছে। অন্যদিকে– রিপোর্ট হাতে পেতেই আরও ফুঁসে উঠেছেন ওই চিকিৎসক। ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছেন তিনি।
২০১৭-তে  উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরে বিআরডি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে দু’দিনে ৬০টি শিশু মমৃত্যুর ঘটনায় দেশজুড়ে চাঞ্চল্য ছড়ায়। গাফিলতির অভিযোগে গ্রেফতার হন চিকিৎসক কাফিল খান। তদন্ত কমিটি গড়ে শুরু হয় ঘটনার তদন্ত। কমিটির সেই রিপোর্টেই ‘ক্লিনচিট’ দেওয়া হয় চিকিৎসককে। তবে রাজ্য সরকার দাবি করেছে– কাফিলকে সমস্ত অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়নি। সরকারি তরফে আরও দাবি– তাঁর বিরুদ্ধে এখনও তদন্ত চলছে। বিভিন্ন সংবাদপত্র ও সোশ্যাল মিডিয়াতে ওই চিকিৎসক সম্পর্কে যা বলা হচ্ছে– তা অসত্য এবং বিভ্রান্তিকর। প্রাইভেট প্র্যাকটিসের অভিযোগ ছিল কাফিলের বিরুদ্ধে। তিনি তাঁর সঠিক উত্তর দেননি।
অন্যদিকে– মাথার ওপর থেকে অভিযোগের পাহাড় সরে যেতেই শিশুমৃত্যুর ঘটনায় সিবিআই তদন্তের দাবি করলেন চিকিৎসক। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি দাবি করেন– ‘আমাকে চাকরিতে ফের সম্মানের সঙ্গে পুনঃনিয়োগ করা হোক।’ এর পাশাপাশি ওই চিকিৎসক বলেন– ‘আমি সব সময়ই জানতাম– আমি কোনও অপরাধ করিনি। দুর্ঘটনার দিন একজন চিকিৎসক– একজন বাবা– একজন ভারতীয় হিসাবে আমি আমার সেরাটাই দিয়েছিলাম। তদন্ত রিপোর্টেও দেখানো হয়েছে চিকিৎসা সংক্রান্ত কোনও গাফিলতি হয়নি। দুর্নীতিতেও লিপ্ত ছিলাম না। এবার আমার ওপর থেকে ‘হত্যাকারী কাফিল’ বা ‘কুখ্যাত কাফিল’ এই অপবাদ দূর হয়ে গেল’।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only