বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ডান্সবারকে ছাড় দেওয়ায় পট্টনায়েক সরকারকে তুলোধনা বিজেপির

ওড়িশায় ডান্সবার গুলিকে লাইসেন্স দেওয়ায় বিজেপির তোপে নবীন পট্টনায়েক সরকার। দলের সাধারণ সম্পাদক লেখাশ্রী সামস্তসিনঘর-এর অভিযোগ– এভাবে ডান্সবারকে লাইসেন্স দিয়ে ওড়িয়াদের সংস্কৃতিকে ধ্বংস করার চেষ্টা করছে  রাজ্য সরকার।
হোটেল কিংবা বারে অশালীন নাচ ও মহিলাদের সম্মান রক্ষার্থে ডান্সবারের বিরোধী বিজেপি সরকার। এবার ডান্সবার নিয়ে ওড়িশা সরকারকে তুলোধনা করলেন বিজেপির সাধারণ সম্পাদক লেখাশ্রী সামস্তসিনঘর। তিনি বলেন– ‘ডান্সবারকে লাইসেন্স দিয়ে পট্টনায়েক সরকার আসলে ওড়িশার সংস্কৃতি ধ্বংস করতে চাইছে। এটি ওড়িয়াদের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির বিরোধী। লাইসেন্স দ্রুত বাতিল করা না হলে– মন্দির শহর ভুবনেশ্বর অপরাধ জগতের আতুঁড়ঘরে পরিণত হবে’। 
এখানেই শেষ নয়। তিনি আরও বলেন– ‘পুরুষদের সামনে মহিলাদের অশ্লীল নাচ আমরা মানতে পারব না। পুলিশ অবশ্য আশ্বাস দিয়েছে– মেয়েরা ছোটো পোশাক পরবে না। পাশাপাশি তাঁদেরকে উদ্দেশ্য করে টাকা ছোড়া হবে না বলেও জানিয়েছেন।’ তবে এই আশ্বাস কীভাবে বাস্তবায়িত হবে সে নিযে প্রশ্ন তুলেছেন বিজেপির সাধারণ সম্পাদক। এর সঙ্গে তাঁর সংযোজন– ‘ ডান্সবারে গুলিবর্ষণ কিংবা অপরাধমূলক কাজকর্ম হতে  আমরা দেখেছি। বারের নর্তকীদের দারিদ্রতার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বার মালিকরা তাদের শোষণ করতে পারে। আমার বিশ্বাস– এরফলে মেয়ে পাচারের পরিমাণ বাড়বে। যার ভুল বার্তা যাবে সমাজের কাছে।’
তবে এই সব অভিযোগকে পাত্তা দিতে নারাজ রাজ্যের শাসকদল বিজেডি। দলের তরফে বলা হয়েছে– ডান্সবারের নির্দেশিকা দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। যারা আইন ভাঙবে– তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। দলের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়– বিজেপি ডান্সবারকে লাইসেন্স দেওয়া প্রসঙ্গে যা বলছে– তা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। এইসব কথা বলে মানুষকে বিপথে চালোনা ঠিক নয়। বিজেপি শাসিত  রাজ্যেও ডান্সবার আছে।’ 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only