সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সাধারণ মানুষের দিকে তাকিয়ে রাজ্য নারী ও শিশু কল্যাণ দপ্তরের “পুষ্টি” প্যাকেট

দেবশ্রী মজুমদার, বোলপুর, ১৬ সেপ্টেম্বরঃ  অনেকের সামর্থ্য নেই নামি দামী কোম্পানীর পুষ্টি প্যাকেট কেনা। সেদিকটা নজরে রেখেই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের নারী ও শিশু কল্যাণ দপ্তর “পুষ্টি” প্যাকেট প্রক্রিয়াজাত করেছে। এই পুষ্টি খাদ্যের প্যাকেটের উদ্বোধন করে মন্ত্রী শশি পাঁজা শিশুর মায়েদের হাতে তুলে দেন এই প্যাকেট।

জানা গেছে, পুষ্টি খাদ্যের মধ্যে পুষ্টি অর্থাৎ খাদ্যমূল্য অনেক। এর মধ্যে আছে বাদাম, ছোলা, গম ও চিনির গুড়ো। এই মিশ্রণ খুব পুষ্টিকর। দেখা গেছে, অনেক ক্ষেত্রে শিশু বা মায়েদের মধ্যে পুষ্টির ঘাটতি থেকে যাচ্ছে। সবার পক্ষে দামি দামি পুষ্টিকর খাবার কেনা সম্ভব নয়। সেটা আমাদের মুখ্যমন্ত্রী মাথায় ছিল। সেটাকে সামনে রেখেই বা সাধারণ মানুষের কথা ভেবে এই “পুষ্টি” খাদ্যের সূচনা করেছেন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী, বলে জানান মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা।

জানা গেছে, বীরভূম, মূর্শিদাবাদ, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম ও কলকাতা সহ পাঁচ জেলায় এই পুষ্টি প্যাকেট বিলি করা হয় এদিন। অঙ্গনওয়ারি কেন্দ্রে সপ্তাহে তিনদিন করে এই পুষ্টি খাবার দেওয়া হবে। নারী ও শিশু কল্যাণ দপ্তরের উদ্যোগে মন্ত্রী শশী পাঁজা উপস্থিত ৩০জন শিশু ও তাদের মায়ের হাতে এই পুষ্টি প্যাকেট তুলে দেন। বোলপুর মহকুমা প্রশাসনিক ভবনে এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা, শশী পাঁজা ও অনুব্রত মণ্ডল। এছাড়াও বিভিন্ন জেলার সিডিপিও- রা উপস্থিত ছিলেন। জিরো থেকে পাঁচ বছর শিশুদের শিশু বিকাশ কেন্দ্র ছাড়াও, প্রাথমিক বিদ্যালয়েও ১৩ বছর বয়স পর্যন্ত শিশুদের দেওয়া হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only