বৃহস্পতিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

জেলায় আনুষ্ঠানিকভাবে দেওয়া হল স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের কার্ড

কৌশিক সালুই, বীরভূম, ৫ সেপ্টেম্বর:-  স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের কার্ড আনুষ্ঠানিকভাবে দেওয়া শুরু হলো বীরভূমে। বৃহস্পতিবার জেলা পরিষদের সভাপতি এক উপভোক্তার হাতে এই কার্ড তুলে দিলেন।  রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্য বীমা যোজনা প্রকল্পটি বর্তমান বিজেপি শাসিত সরকার বন্ধ করে দিয়ে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প চালু করেছে। যদিও বাংলায় সেই প্রকল্প চালু না হওয়ায় যাতে কেউ অসুবিধায় না পড়ে তার জন্য বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই প্রকল্পটি চালু করেছেন। আগে রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্য বীমা প্রকল্প থেকে বছরে মাত্র ৩০ হাজার টাকার চিকিৎসার সুবিধা পাওয়া যেত। সেখানে এই স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পে বছরে পাঁচ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্যাশলেস চিকিৎসার সুবিধা পাবেন সংশ্লিষ্ট উপভোক্তারা। বীরভূম জেলায় রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্য বীমা যোজনা প্রকল্পে  লক্ষ ৫০ হাজার জন নথিভুক্ত ছিল। পাশাপাশি সোশ্যাল ইকোনমিক কাস্ট সেন্সাস এ  লক্ষ ৪০ হাজার জন নথিভূক্ত আছেন। সব মিলিয়ে  লক্ষ ৯০ হাজার জন এই স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত হলেন। বীরভূম জেলা পরিষদের সভাপতি বিকাশ রায় চৌধুরী বোলপুর-শ্রীনিকেতন ব্লকের  যজ্ঞনগর বাসিন্দা মাবিয়া বেগম এর হাতে এই প্রকল্পের কার্ড তুলে জেলায় প্রকল্পের সূচনা করলেন। বীরভূম জেলার ৪৬টি নার্সিংহোম হাসপাতালে স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের কার্ডে চিকিৎসার সুবিধা পাওয়া যাবে। চিকিৎসা করতে যাওয়া আসার জন্য সরকারি হাসপাতালে ক্ষেত্রে ৪০০ টাকা এবং বেসরকারি হাসপাতালের জন্য ২০০ টাকা করে খরচ দেওয়া হবে উপভোক্তাদের হাতে। এছাড়াও রোগীদেরকে পাঁচদিনের ওষুধ বিনামূল্যে দেওয়া হবে এই প্রকল্পের আওতায়। এছাড়া এই প্রকল্প নথিভুক্ত ব্যক্তির নিজের মা বাবা ছাড়া শ্বশুর-শ্বাশুড়ি এবং অবিবাহিত ছেলে মেয়েরা চিকিৎসার সুবিধা পাবেন বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only