সোমবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

শৌচাগারের দাবিতে গ্রামবাসীদের বিক্ষোভ

দেবশ্রী মজুমদার, রামপুরহাট, ৯ সেপ্টেম্বর:- নির্মল বীরভূম ঘোষণা হয়েছে অনেক আগেই। কিন্তু এখনও বহু বাড়িতে শৌচালয় নির্মাণ হয়নি। প্রতিবাদে সোমবার বিডিও অফিসে বিক্ষোভ দেখালেন গ্রামবাসীরা।

দীর্ঘদিন আগেই বীরভূমকে নির্মল হিসাবে ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। কিন্তু এখন বহু গ্রাম রয়েছে যেখানে মানুষ খোলা আকাশের নিচে শৌচকর্ম সারতে বাধ্য হন। এমনই ছবি ধরা পড়েছে বীরভূমের নলহাটি ২ নম্বর ব্লকের শীতলগ্রামে। ওই গ্রামে অধিকাংশ বাড়িতে শৌচালয় নেই। ফলে বাড়ির সকলে খোলা আকাশের নিচে শৌচকর্ম সারেন। কিন্তু গ্রামবাসীরা আর বাইরে শৌচকর্ম সারতে রাজি নন। তাই শৌচালয় নির্মাণের দাবিতে পঞ্চায়েতে আবেদন করেন। কিন্তু পঞ্চায়েত আবেদনে সাড়া না দেওয়ায় এদিন গ্রামের মহিলারা বিডিও অফিসে জমায়েত হয়ে দাবি জানাতে থাকেন। গ্রামের বাসিন্দা প্রমীলা দাস, সঙ্গীতা দাস, বীথিকা সূত্রধররা বলেন, “আর খোলা আকাশের নিচে শৌচকর্ম সারতে ভালো লাগছে না। সম্মানে যেমন লাগছে, তেমনি এলাকায় দূষণ বাড়ছে। তাই আমরা শীতলগ্রাম পঞ্চায়েতের কাছে আবেদন জানিয়েছিলাম শৌচালয় নির্মাণের। কিন্তু পঞ্চায়েত আবেদনে সারা দেয়নি। তাই আমরা বিডিও এর দ্বারস্থ হয়েছি”। পঞ্চায়েত শিবানী মাল বলে, “আমি আসার আগে ওরা আবেদন করেছিল। এখন নতুন করে শৌচালয় আসেনি। তাই দেওয়া সম্ভব নয়”। বিডিও হুমায়ূন চৌধুরী বলেন, “আগের যে তালিকা তৈরি হয়েছিল তাতে কিছু মানুষের নাম নেই। তবে নতুন করে পুনরায় তালিকা তৈরি করা হয়েছে। সেই তালিকা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পেলেই নতুন করে শৌচালয় নির্মাণ করে দেওয়া হবে”।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only