মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

৬ মাসের শিশুকে পিষে দিল ঘাতক লরি

দেবশ্রী মজুমদার, রামপুরহাট, ১৭ সেপ্টেম্বরঃ  নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে  ঝুপড়ির ভিতরে ঢুকে ছ'মাসের শিশুসন্তানকে পিষে দিল ইঁট বোঝাই লরি। ঘটনার জেরে গুরুতর আহত ওই শিশুর বাবা বাম দাস সহ আরও তিনজন। তাদের চিকিৎসা চলছে  রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজে। ঘটনাটি ঘটেছে রামপুরহাট ৮নং ওয়ার্ডের চামড়া গুদাম এলাকার কাছে কালি সাঁড়া মৌজায়। এদিকে শিশু মৃত্যুকে ঘিরে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় রামপুরহাট। উত্তেজিত জনতা টায়ার জ্বালিয়ে রামপুরহাট –বিষ্ণুপুর রাস্তা পথ অবরোধ করে। অভিযোগ, ওভার লোডেড লরি ওই রাস্তায় চলাচল করায় এরকমভাবে পথ দূর্ঘটনা বেড়ে চলেছে। এলাকাবাসীর একাংশের বক্তব্য কিছু অসাধু ব্যবসায়ী ও পুলিশের যোগসাজশে এই ওভারলোডেড গাড়িগুলো রামপুরহাট – বিষ্ণুপুর রাস্তা দিয়ে মুর্শিদাবাদ যাতায়াত করছে।   

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকাল সাতটা নাগাদ ইঁট বোঝায় লরি রাস্তার ধারে এক ঝুপড়ি বাড়ীর ভেতর ঢুকে পড়ে। সেই সময় পেশায় মজদুর বাম দাস তার ছমাসের পুত্র সন্তানকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন। বাড়ির অন্যান্য সদস্যরা জল ভরতে বাড়ির বাইরে ছিলেন। কয়েক মুহূর্ত আগেও তাঁরা আঁচ করতে পারেনি এমন মর্মন্তুদ ঘটনা ঘটতে পারে।

জানা গেছে, লরিটি ইঁট বোঝায় করে মুর্শিদাবাদ এলাকা থেকে রামপুরহাটের দিকে আসছিল। গাড়ির গতিবেগ স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি ছিল। আচমকাই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন গাড়ির চালক।  কিছু বুঝে ওঠার আগেই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সোজা রাস্তার ধারে ঝুপড়ি ঘরের ভেতর ঢুকে পড়ে লরিটি।

বিকট শব্দ শুনতে পেয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা ছুটে আসেন। তাঁরাই প্রথমে উদ্ধারকাজ শুরু করেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় রামপুরহাট হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ঘাতক লরির চালক ও গাড়ীর মালিককে উত্তেজিত  জনতা মারধর শুরু করে। গাড়ীর ড্রাইভার বলেন, আমি ঘুমিয়েছিলাম, মালিক গাড়ি চালাচ্ছিল। মালিক, ভালো চালাতে পারেনা, সবে শিখেছে আর মালিকের ড্রাইভিং লাইন্সেসও নেই। ঘটনাস্থলে রামপুরহাট থানার পুলিশ এসে গাড়ীর ড্রাইভার সহ মালিককে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only