রবিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

বর্ধমানে মাদ্রাসা শিক্ষক-শিক্ষাকর্মী সমিতির জেলা সম্মেলন



এস জে আব্বাস, শক্তিগড়:- পূর্ব বর্ধমানের গোলাপবাগে রবিবার মাদ্রাসা শিক্ষক শিক্ষাকর্মী সমিতির ১৫তম জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। প্রতি ৩ বছর অন্তর হওয়া এই সম্মেলনে জেলার তিনশো শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মী অংশগ্রহণ করেন বলে জানান সমিতির জেলা সম্পাদক আলী হোসেন মিদ্দ্যা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। এছাড়াও, উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সহ সভাধিপতি দেবু টুডু, কর্মাধ্যক্ষ উত্তম সেনগুপ্ত, মেন্টর উজ্জল প্রামাণিক, সমিতির রাজ্য সভাপতি রফিকুল ইসলাম, রাজ্য সম্পাদক সৈয়দ সাফাকাত হোসেন, রাজ্য সহ-সভাপতি সৈয়দ সাজ্জাদ হোসেন, কার্যকরী সভাপতি জহুর আলম ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আব্দুল গনি, রথীন মল্লিক, তৃণমূল মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি তপন দাস, সমিতির জেলা সভাপতি এহসানুল হক প্রমুখ।
সম্মেলনে মাদ্রাসার শিক্ষকশিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মীদের বদলি, বেতন বৈষম্য, শিক্ষক নিয়োগ সহ বিভিন্ন দাবি-দাওয়া ও অভাব-অভিযোগ নিয়ে কথা ওঠে। এছাড়া, সমিতির পরবর্তী কর্মসূচি রূপায়ন, মাদ্রাসা নিয়ে যে অপপ্রচার তা বন্ধ ও সম্প্রীতির দেশ নির্মাণে শিক্ষক সমাজকে এগিয়ে আসার দাবি ওঠে। মন্ত্রী স্বপন বাবু দেশের বর্তমান পরিস্থিতির ভয়াবহ অবস্থার কথা মাথায় রেখে সম্প্রীতির ভারতবর্ষ গড়ার দায়িত্ব শিক্ষকদের উপর ন্যস্ত করেন। তিনি আরো জানান, শিক্ষার কোনো ধর্ম নেই। ধর্মের ঊর্ধ্বে উঠে আচার-সর্বস্বতাকে গৌণ হিসেবে দেখে মানবতার শিক্ষা আমাদের গ্রহণ করতে হবে। রথীন বাবু ও তপনবাবুর বক্তব্য ফুটে ওঠে, মাদ্রাসা ও স্কুলগুলিতে নিয়োগ নিয়ে চক্রান্ত হচ্ছে ।রাজ্য সরকার শিক্ষকদের দাবি-দাওয়া নিয়ে যথেষ্ট সহানুভূতিশীল। সাজ্জাদ সাহেব জানান, মাদ্রাসা শিক্ষাব্যবস্থা কোনো আকস্মিক ঘটনা নয়। মহানবীর সময় থেকে চালু হওয়া এই শিক্ষা ব্যবস্থাকে টিকিয়ে রাখার দায়িত্ব আমাদের। মাদ্রাসাই মানবিক শিক্ষা ও দেশপ্রেমের শিক্ষার আকর। এদিনের সম্মেলন থেকে জানা যায়, শীঘ্রই পরবর্তী রাজ্য সম্মেলন দীঘাতে অনুষ্ঠিত হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only