শুক্রবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

প্রয়াত জিম্বাবুয়ের জাতির পিতা মুগাবে



প্রয়াত হলে জিম্বাবুয়ের জাতির পিতা হিসাবে পরিচিত রবার্ট মুগাবে। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়ে ছিল ৯৫ বছর। ১৯৮০ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত, দীর্ঘ ৩৭ বছর জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট ছিলেন তিনি।এর পর অভ্যুত্থান ঘটায় তিনি ক্ষমতাচ্যূত হন। চলতি বছরের শুরুতেই তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি সম্পর্কে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল। সিঙ্গাপুরের এক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থার তাঁর মৃত্যু হয়। চলতি বছরের এপ্রিল মাস থেকে তিনি ওই হাসাপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

রাজনীতিক ক্ষেত্রে তাঁর উত্তরসূরি তথা জিম্বাবুয়ের বর্তমান প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগোয়া এক ট্যুইট বার্তায় গভীর শোক প্রকাশ করে। সেখানে তিনি বলেছেন, গভীর শোকের সঙ্গে জিম্বাবুয়ের জাতির পিতা প্রাক্তণ প্রেসিডেন্ট রর্বাট মুগাবের মৃত্যুসংবাদ আমাকে জানাতে হচ্ছে। মুগাবে ছিলেন আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রতীক, প্যান-আফ্রিকা মতবাদের একজন সমর্থক, যিনি তাঁর জীবন উৎসর্গ করেছিলেন জনগণের মুক্তি ক্ষমতায়নের জন্য।'

১৯২৪ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি রবার্ট মুগাবে জন্মগ্রহণ। তখন জিম্বাবুয়ের নাম ছিল রোডেশিয়া। এই ব্রিটিশ কলোনিতে তখন সংখ্যালঘু শ্বেতাঙ্গদের শাসন চলছিল। রোডেশিয়া সরকারের সমালোচনা করায় এক দশকের বেশি সময় বিনা বিচারে বন্দি থাকতে হয় মুগাবেকে। ১৯৭৩ সালে কারাগারে থাকা অবস্থায় জিম্বাবুয়ে আফ্রিকান ন্যাশনাল ইউনিয়ানের প্রেসিডেন্ট হন মুগাবে। মুক্তির পর মুগাবে মোজাম্বিকে চলে যান। সেখান থেকে রোডেশিয়া সরকারের বিরুদ্ধে শুরু করে গেরিলা যুদ্ধ। পাশাপাশি সরকারের সঙ্গে আলোচনাও চালিয়ে যান। এরপর আলোচনার মাধ্যমে জন্ম হয় নতুন রাষ্ট্র রিপালিক অব জিম্বাবুয়ে।এর জন্য তাকে জিম্বাবুয়ের 'নেলসন ম্যান্ডেলা'। কৃষ্ণাঙ্গ জনগোষ্ঠীর জন্য শিক্ষা ও চিকিৎসা সেবার সুযোগ বাড়িয়ে দেওয়ার তিনি পুরো বিশ্বের কাছে প্রশংসার পাত্র হয়ে ওঠেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only