শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

হরিয়ানায় রহস্যজনক ভাবে খুন মসজিদের ইমাম ও তাঁর স্ত্রী

'ভয়েস অব ইসলাম' নাম দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া এক ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে নিহত ইমাম-এর ছবি– মসজিদের ছবি– পুলিশের সঙ্গে কথা বলছেন জমিয়তে উলামা পাঞ্জাবের প্রতিনিধিগণ। এই ঘটনা নিয়ে এখনও মেইন স্ট্রিম মিডিয়ায় কিছু জানানো হয়নি। ভিডিয়োর সত্যাসত্য না জেনেই এই ছবি অতি দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে সোশাল মিডিয়ায়। যদিও ভিডিয়োর ভাষ্যকার জনৈক আলেম এই ঘটনাকে সাম্প্রদায়িক রূপ দিতে নিষেধ করেছেন এবং দাবি করছেন হরিয়ানা পুলিশ যেন এই মর্মান্তিক খুনের কিনারা করে দোষীদের চিহ্নিত করে এবং আইনে সোপর্দ করতে পারে। তাদের এই ভিডিয়োর বর্ণনা অনুযায়ী মাওলানা মুহাম্মদ নাদভি মসজিদের মোতাওয়াল্লি খুরশিদ আহমদের কাছ থেকে বিস্তারিত জেনে নেওয়ার পর এই ভিডিয়োয় বয়ান দিয়েছেন। মোতাওয়াল্লি খুরশিদ আহমদের বর্ণনা অনুযায়ী, পানিপথের মালিক মাজরি গ্রামের এই মসজিদের সংলগ্ন ইমাম সাহেবের হুজরা। ৩২ বছরের এই অন্ধ ইমাম স্ত্রীর সঙ্গে এখানে থাকেন। ইমাম সাহেব নিজেই মসজিদে আযান দিতেন ও নামায পড়াতেন। গ্রামে মাত্র কয়েক ঘর মুসলিম রয়েছে। আর  ইমাম হাফিজ মুহাম্মদ ইরফান এই মসজিদে ৮ বছর ধরে ইমামতি করছেন। ইমাম সাহেবের বাড়ি পাঞ্জাবের মোহালিতে। আর এই মসজিদটি পরিচালিত হয়ে চলেছে পাঞ্জাবের একটি প্রখ্যাত মুসলিম সংগঠনের অধীনে।'
মোতাওয়াল্লি খুরশিদ আহমদ জানাচ্ছেন, ফজরের নামাযের আযান না শুনতে পেয়ে নামাযিরা মসজিদে আসেন ভোরের দিকে। ইমাম সাহেবকে ডাক দিয়ে সাড়া না পাওয়ায় তাদের কৌতূহল বেড়ে যায়। ইমাম সাহেবের স্ত্রীরও কোনও সাড়া না পেয়ে তারা ইমামের হুজরার দিকে এগিয়ে যায়। দরজায় টোকা মেরে দেখতে গেলে দরজা খুলে যায়। মোবাইলের আলো জ্বেলে তারা দেখেন ইমাম সাহেব তাঁর খাটের উপর রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন আর তাঁর স্ত্রী মেঝের উপর রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে রয়েছে। ঘরের মেঝে রক্তে ভেসে আছে। পুলিশে খবর দেওয়ার পর এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। জমিয়তে উলামা পাঞ্জাবের দায়িত্বশালী মাওলানা কাশমি এবং মাওলানা হারুন ঘটনাস্থলে এসে উপস্থিত মানুষদের শান্ত করতে থাকেন। পুলিশের উপর তলার অফিসাররা একে একে আসতে থাকেন এই মসজিদে। ডিজিপি জানিয়েছেন তারা অপরাধীদের সন্ধানে তদন্ত শুরু করেছে। একজন অন্ধ ইমামের উপর কার বা আক্রোশ হতে পারে সেটা নিয়ে সন্দেহ দানা বেঁধেছে। ভিডিয়োতে বারবার বলা হচ্ছে ঘটনায় সাম্প্রদায়িক রং না লাগাতে। বলা হচ্ছে, হরিয়ানা পুলিশের সুনাম রয়েছে নিরপেক্ষ তদন্ত করার।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only