বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

মোবাইলের চোখ রেখে চলার জন্য তৈরি হল আলাদা রাস্তা!


মোবাইল এখন মাথা ব্যাথার কারণ। বিশেষ করে পথ চলতি মানুষ, যারা মোবাইল মুখগুঁজে চলেন। রাস্তায় তাদের সামাল দিতে ট্রাফিক পুলিশদের হিমশিম খেতে।বিষয়টি নিয়ে দেশে এসছে নয়া আইন।মোবাইলে কথা বলতে বলতে রাস্তা পারাপার করলেই দিতে হবে জরিমানা।কিন্তু স্বভাব পাল্টাচ্ছে কই?

তাই জরিমানার ওপরে ভরসা না করে মোবাইল প্রেমীদের জন্য একটি আলাদা রাস্তাই তৈরি করে দিল ম্যানঞ্চেস্টার সরকার। সম্প্রতি মোবাইলে চোখ রেখে পথ চলা মানুষের জন্য ‌‌‌‌‌‌' স্লো লেন' তৈরি করেছে তারা। ম্যাঞ্চেস্টারের সিটি সেন্টারে পরীক্ষামূলকভাবে এই ধরণের রাস্তার উ্দ্বোধন করা হয়েছে। ইউরোপে এই প্রথম কোন জায়গায় এই ধরণের অভিনব রাস্তার উদ্বোধন করা হল।সরকার আশা এই আলাদা ধরণের রাস্তার জন্য পথদূর্ঘটনা এড়ানো যাবে। কারণ এই পথ ধরেই নিশ্চিন্তে মোবাইলে মুখ রেখে হাঁটা চলা করতে পারবেন পথচারীরা।

ম্যাঞ্চেস্টারের স্পিনিংফিল্ডস্-এ ধরণের ৭৫ ফিট লম্বা একজোড়া রাস্তা তৈরি করা হয়েছে। এই রাস্তার প্রচার চালাচ্ছে এও ডট কম।গবেষণা বলছে, 'ডিসট্রাকটেড অ্যাজ লুকিং অ্যাট ফোন' (ডিএএলএপিএস) এখন পথচারীদের মধ্যে সবচেয়ে বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা 'হু' বলছে, এই স্বভাবের জন্য মানুষের পথ চলার স্বভাবে চরিত্রগত পরিবর্তন এসেছে।তাই, মোবাইলে স্যোস্যাল মিডিয়ায় চ্যাট বা ই-মেল দেখতে দেখতে পথ চলতে গিয়ে অনেক সময়ই ঘটে যাচ্ছে দূর্ঘটনা। ম্যাঞ্চেস্টারের ৯১ শতাংশ মানুষ 'ডিস্ট্র্যাক ওয়াক'-এর সমস্যায় ভুগছে।পথচলতে গিয়ে এককে অপরকে আঘাত করছেন অথবা বাতিস্তম্ভে ধাক্কা খেয়ে আহত হন। প্রতিদিন প্রায় ৫৯ শতাংশ মানুষ বাতিস্তম্ভে ধাক্কা খেয়ে আহত হন।ব্রিটেনের আরও কয়েকটি শহরে যেমন কার্ডিফ, কনভার্টি, গ্লাসগো, লিভারপুল, লন্ডন, এবং অক্সফোর্ডের এই ধরণের সমস্যার সম্মুখীন পথচারির সংখ্যা কম নয়। সেখানেও একই সমস্যা দেখা দিচ্ছে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only