বৃহস্পতিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

১১ মুসলিম ব্রাদারহুড নেতার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

হামাসের হয়ে চরবৃত্তির অভিযোগে ১১ জন মুসলিম ব্রাদারহুড নেতাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দিল কায়রো ক্রিমিনাল কোর্ট। এই নেতাদের মধ্যে দলটির শীর্ষ নেতা মুহাম্মদ বাদেই রয়েছেন। এছাড়া পার্লামেন্টের প্রাক্তন স্পিকার সাদ আল কাত্তানি,  ব্রাদারহুডের ডেপুটি গাইড খাইরাত আল শাতের– ইসাম আল আরিয়ান, মুহাম্মদ আল বেলতাগির মতো শীর্ষর নেতারা রয়েছেন।  
গণতান্ত্রিক ভাবে নির্বাচিত মিশরের প্রথম প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ মুরসিকেও একই মামলায় অভিযুক্ত করা হয়েছিল।কিন্তু, শুনানি চলার সময় তাঁর মৃত্যু হয়।  

২০১২ সালে সাধারণ নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে প্রেসিডেন্ট হন মুরসি। কিন্তু ইসরাইল ও আমেরিকার অসাধু মদদে মাত্র এক বছরের মধ্যে মিশরে অভ্যুত্থান ঘটানো হয়। এরপর আবদেল ফাত্তাহ আল সিসি মিশরের প্রেসিডেন্ট হন।

ক্ষমতায় আসার পর থেকে একের পর এক মুসলিম ব্রাডারহুড নেতাকে গ্রেফতার করা হয় অথবা নেতা খুন করা হয়। প্রত্যেকের একটাই অপরাধ ছিল, যে তারা সিসির বিরোধিতায় মুখ খুলেছিলেন। 

একই অভিযোগে মুরসির তিন আধিকারিককে ১০ বছর ও আরও দুজন আধিকারিককে ৭ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। পাঁচ জনকে খালাস দেয়া হয়েছে। এই রায়ের বিরুদ্ধে সাজাপ্রাপ্তরা ৬০দিনের মধ্যে আপিল করতে পারবেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only