শুক্রবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ইউএপিএ-তে মৌলিক অধিকার খর্ব হচ্ছে, কেন্দ্রকে নোটিস শীর্ষ কোর্টের

গত সংসদ অধিবেশনে পাশ হয়েছে সংশোধিত ইউএপিএ বিল। এরপর প্রথমবার ইউএপিএ-র আওতায় দাউদ ইব্রাহিম, হাফিজ সইদ, মাসুদ আজহারদের নাম তালিকাযুক্ত করা হয়। মূলত , এই আইনের আওতায় সংগঠনের বাইরেও যেকোনও ব্যক্তিকে 'জঙ্গি' হিসাবে তকমা দিতে পারে কেন্দ্র। আর মোদি সরকার মসনদে বসবার পর, এই আইন পাশ হয় সংসদে। এবার সেই আইনের জন্য মোদি সরকারের কাছে পৌঁছে গেল সুপ্রিম কোর্টের আইনি নোটিস।বিলে নতুন সংশোধনীতে বলা হয়েছে,এবার থেকে কোনও জঙ্গি নাশকতা বিষয়ক তদন্তে রাজ্য পুলিশের কাছ থেকে এনআইএ-কে অনুমতি নিতে হবে না। এবার সরাসরিই বিষয়টি দেখবে জাতীয় তদন্তকারী দল বা এনআইএ। উল্লেখ্য, এই আইনের বিরুদ্ধে একটি পিআইএল দায়ের করা হয়। যেখানে বলা হয়েছে, এই আইন অনুযায়ী নাগরিকদের মৌলিক অধিকার খর্ব হচ্ছে। মামলাতে দাবি করা হয়েছে, এই আইনের মাধ্যমে একজন ব্যক্তি নিজেকে গ্রেফতারির আগে স্বপক্ষে বলার অধিকারও পাবে না। যার ফলে সংবিধানের মূল অংশকে খর্ব করে এই নতুন সংশোধিত আইন।এছাড়াও একটি সমাজসেবী সংস্থার তরফে দায়ের হওয়া পিআইএলএর মামলাও এদিন শোনে আদালত। আর দুটি পিআইএল-ই ছিল ইউএপিএকে নিয়ে। সমস্ত পিআইএল-এর প্রেক্ষিতে এদিন , ইউএপিএ আইন নিয়ে মোদি সরকারের কাছে নোটিস পাঠায় সুপ্রিম কোর্ট।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only