শনিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আলসারের ওষুধে ক্যানসারের উপাদান, নিষিদ্ধ রেনিটিডিন


আলসারের চিকিৎসায় ব্যবহৃত রেনিটিডিন ট্যাবলেট ক্যানসার সৃষ্টিকারী উপাদান পাওয়া গিয়েছে।যার জেরে বিশ্ব বাজার থেকে এই ওষুধ তুলে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রস্তুতকারক সংস্থা জিএসকে বা গ্ল্যাক্সো কোম্পানি। আমেরিকা সহ একাধিক পশ্চিমা দেশ তদন্ত চালিয়ে মারণরোগ ক্যানসারের উপাদান খুঁজে পায় রেনিটিডিনে। ব্রিটেন ভিত্তিক বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ওষুধ কোম্পানি গ্ল্যাক্সো স্মিথ ক্লাইন-এর তৈরি রেনিটিডিন ট্যাবলেট ভারতেও বহুল প্রচলিত। 

তাই ভারত থেকেও এই ওষুধ নেওয়া বা এর বিক্রিতে স্থগিতাদেশ দিয়েছে গ্ল্যাক্সো।মূলত স্টমাক বা পাকস্থলি এবং ইন্টেস্টাইন বা অন্ত্রে উৎপাদিত অ্যাসিড বা গ্যাস নিয়ন্ত্রণে কাজ করে এই ওষুধ।গ্যাস থেকেই পরবর্তীতে আলসার রোগ হয়। গ্যাসট্রিক ও ডিওডেনাল আলসার পেপটিক আলসারেরই দু'টি ভাগ। 

সারাবিশ্বেই রেনিটিডিন ও এই গ্রুপের ওষুধের রমরমা ছিল। শুধুমাত্র ভারতে এই গ্রুপের ওষুধের ব্যবসা হয় প্রায় ৭০০ কোটি টাকার। এই ব্রান্ডের অন্যান্য ওষুধের নাম হল রানট্যাক, রানট্যাক-ওডি, আর-লক, রেনিটিন ইত্যাদি। অনেক দেশে জ্যানেটেক নামেও বিক্রি হয় রেনিটিডিন। উল্লেখ্য, অ্যাসিডিটি বা গ্যাস-অম্বল এবং গ্যাসট্রিক সংক্রান্ত সমস্যায় বিশ্বে সব থেকে বেশি বিক্রি হয় এই গ্রুপের ওষুধ। শুক্রবার থেকে আমেরিকায় রেনিটিডিনের সব ওষুধ বিক্রি নিষিদ্ধ হয়েছে।

চলতি মাসের ১৩ তারিখ মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বা এফডিএ গ্যাস ও আলসারের চিকিৎসায় রেনিটিডিন সেবেনর ওপর সতর্কতা জারি করে। বলা হয়, পরিবেশ দূষণকারী এনডিএমএ স্বল্পমাত্রায় হলেও রয়েছে রেনিটিডিনে। তবে এই উপাদান মানুষের জন্য কতটা ক্ষতিকারক, তা খতিয়ে দেখতেই সমস্ত দেশ থেকে এই ওষুধ বিক্রি বন্ধ করে তুলে নেওয়া হচ্ছে রেনিটিডিন। 

যদিও অন্যান্য অনেক খাদ্যদ্রব্য এবং নরম পানীয়তেও কমবেশি থাকে এই উপাদান।গতবছর ব্লাড প্রেসারের ওষুধ ভালসার্টান ও লোসার্টনের মধ্যেও এই উপাদান খুঁজে পায় এফডিএ। তারপর আমেরিকা সহ আরও বেশ কিছু দেশ এই দুটি ওষুধের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। মানবদেহ ও স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক প্রমাণ হওয়ায় এর আগেও এরকম অনেক ওষুধ নিষিদ্ধ ও বাজেয়াপ্ত করেছে বিভিন্ন দেশ। অর্থাৎ ওই সব ওষুধের বিক্রি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only