বৃহস্পতিবার, ৩ অক্টোবর, ২০১৯

ছেলের নামাঙ্কিত জাহাজে উদ্ধারকারীদলে নিযুক্ত হতে চান আয়লানের পিতা



লাল টি-সার্ট ও ব্লু হাফপ্যান্ট পড়া এক তিন বছরের শিশু মুখতুবড়ে ভূমধ্যসাগরের তীরে মৃত অবস্থায় পড়ে আছে। এ মর্মান্তিক ছবি পৃথিবীর যে কোনও মানুষের কাছে খুব চেনা। সিরিয়া যুদ্ধের সময় ভূমধ্যসাগরের পথে শরণার্থী হিসাবে গ্রিসে আসতে গিয়ে এমনই শোচনীয় মৃত্যুর সম্মুখীন হয়ে ছিল ছোট্ট শিশু আয়লান কুর্দি। সম্প্রতি আয়লানের নামের একটি উদ্ধারকারী জাহাজ তৈরি করেছে জার্মানি।

সমুদ্রের পারাপারের সময় বিপদ দেখা দিলেই দুর্ঘটনাগ্রস্তদের দিকে ছুটে যাবে 'আয়লান কুর্দি' নামে জাহাজটি। এই সেই জাহাজে উদ্ধারকারী হিসাবে নিযুক্ত হতে চান আয়লানের বাবা আবদুল্লাহ কুর্দি। মাঝ সমুদ্রে ডুবন্ত শরণার্থীদের বাঁচাতেই তিনি এই উদ্ধারকারী জাহাজে নিযুক্ত হতে চান।

২০১৫ সালে তুরস্কের বোদ্রুম থেকে সমু্দ্র পথে গ্রিসে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে আয়লান ও তাঁর মা ও ভাইয়ের মৃত্যু হয়। সেই দেহই পরে কাদামাখা অবস্থায় ভূমধ্যসাগরের তীরে পাওয়া যায়। এর পর একই কাটিয়েছে আবদুল্লাহ। পরে তিনি দ্বিতীয়বার বিয়ে করেন। বর্তমানে তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী সন্তান সম্ভবা। তিনি জানিয়েছেন, আয়লানের মতো আর কোনও শিশুকে সমুদ্র পারাপার করতে গিয়ে অকালে ঝড়ে যেতে দেবেন না। তিনি এই জাহাজ পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত হয়ে উদ্ধার কাজে সাহায্য করবেন।

বর্তমানে জাহাজটি এখন স্পেনের বুরিনা বন্দরে রাখা রয়েছে। জানা গিয়েছে, উদ্ধার কাজ চালানোর মতো এখনও অর্থ জোগাড় করে উঠতে পারেনি জাহাজ সংস্থাটি। তবে খুব তাড়াতাড়ি এই জাহাজ অভিযানে নামানো হবে বলে আশাবাদী জাহাজ সংস্থাটি।

সংস্থার মুখপাত্র বলেন, আবদুল্লাহ কুর্দি আমাদের সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন। কিন্তু এ কাজে নিয়োগ করার আগে আমাদের দেখে নিতে হবে যে তিনি উদ্ধারকার্য সম্পর্কে কতটা ওয়াকিবহাল। এই মুহূর্তে ইরাকের একটি শরণার্থী শিবিরে শিশুদের সাহায্য করছেন আবদুল্লাহ। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only