বুধবার, ৩০ অক্টোবর, ২০১৯

প্রধানমন্ত্রী হারির পদত্যাগ, রাজনৈতিক সংকটের মুখে লেবানন


বিক্ষোভকারীদের চাপে শেষমেশ প্রধানমন্ত্রীত্ব থেকে পদত্যাগ করলেন সাদ হারির। তিনি বলেছেন, বিক্ষোভের মুখে পড়ে দেশবাসীকে 'ইতিবাচক চমক' দেওয়ার জন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

মঙ্গলবার একটি টেলিভিশন বার্তার মাধ্যমে, তিনি পদত্যাগের কথা ঘোষণা করেন।বিক্ষোভকারীদের দাবি কিছুটা সার্থক হলেও দেশটিতে রাজনৈতিক অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে।

প্রায় দু'সপ্তাহ ধরে শাসকগোষ্ঠীর নেতামন্ত্রীদের বিরোধীতায় আন্দোলনে নামেন লেবাননের নাগরিকদের একাংশ।কারণ ১৯৭৫-৯০ সালের গৃহযুদ্ধের পর দেশটি বর্তমানে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটে পড়েছে। 

জানা গিয়েছে,  হিজবুল্লাহ ও আমাল মুভমেন্টের সমর্থকরাই আন্দোলনে মূলত অংশগ্রহণ করেছেন।পদত্যাগের সময় হারির বলেছেন, ' ১৩দিন ধরে লেবাননের জনগণ অর্থনীতির সংকট রোধে একটি রাজনৈতিক সমাধানের সিদ্ধান্ত জানতে অপেক্ষা করেছে। জনগণের কথা শুনে এই সময়ের মধ্যে একটি সমাধান বের করার চেষ্টা করেছি আমি। সময় এসেছে, সংকটের মুখোমুখি হয়ে আমাদের বড় ধরণের একটি ধাক্কা খাওয়ার। রাজনৈতিক জীবনের সকল অংশীদারদের বলছি, আমাদের আজকের দায়িত্ব হচ্ছে, কীভাবে আমরা লেবাননকে রক্ষা করবো এবং এর অর্থনীতির পুনরুত্থান ঘটাবো তার সমাধান বের করা।

এর আগে মঙ্গলবারই বিক্ষোভকারীদের তাঁবুতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়ে ছিল। তখন পতাকা হাতে বিক্ষোভ শুরু করেন বিক্ষোভকারীরা। রাজধানীকে শান্ত রাখতে শেষমেশ পদত্যাগ করেন হারিরি।

উল্লেখ্য লেবাননের সংবিধান অনুযায়ী, পদত্যাগ করলেও নতুন সরকার গঠন না হওয়া পর্যন্ত বর্তমান সরকারই অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের দায়িত্ব পালন করে। বর্তমানে নতুন সরকার গঠনের আলোচনা শুরু হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only