শুক্রবার, ২৫ অক্টোবর, ২০১৯

মুখ্যমন্ত্রীর ভাইফোঁটায় আমন্ত্রিত রাজ্যপাল, দিলেন মমতার মতোই স্বাস্থ্য সচেতনতার বার্তা





চিন্ময় ভট্টাচার্য

'আয়ুর্বেদ দিবস' উপলক্ষে 'স্বাস্থ্যই সম্পদ', এই বার্তা দিতে সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্কে হাঁটলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। 'রান ফর আয়ুর্বেদ'  নামে এই অনুষ্ঠানে রাজ্যপালের সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী সুদেশ ধনকড়ও। সেখানে রাজ্যপাল বলেন, 'স্বাস্থ্যই দেশের সম্পদ। স্বাস্থ্য রক্ষার জন্যই পাঁচ হাজার বছরের পুরনো চিকিৎসা পদ্ধতি আয়ুর্বেদ। এমন চিকিৎসা পদ্ধতি অন্য কোনও দেশে নেই। এমনকী, চিনেও নেই।' একথা বলার পরেই আয়ুর্বেদ দিবস উপলক্ষে সোশ্যাল মিডিয়ায় রাজ্যপাল টুইট করেন। টুইটারে তিনি ছবিও প্রকাশ করেছেন। সেখানে রাজ্যপাল লিখেছেন, 'স্ত্রী সুদেশ ধনকড়ের সঙ্গে রান ফর আয়ুর্বেদের সূচনা করলাম।'

এর আগে বৃহস্পতিবারই উত্তরবঙ্গ সফরে তাঁর হাঁটার ছবি পোস্ট করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই ছবিতে দেখা গিয়েছে, কার্শিয়াঙের পাহাড়ি রাস্তায় হাঁটার ভঙ্গীতে শাড়ি এবং হাওয়াই চটি পরে কার্যত দৌড়চ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কার্যত ছুটতে দেখা গিয়েছে তাঁর নিরাপত্তারক্ষীদেরও। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী এই রাস্তায় হাঁটায় রীতিমতো টেক্কা দিয়েছেন ট্র্র‍্যাকস্যুট পরা আমলাদের। টেক্কা দিয়েছেন তাঁর সফর সঙ্গীদেরও। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পর, এবার সামনে এল আয়ুর্বেদ দিবসে রাজ্যপালের হাঁটার ছবি।


মুখ্যমন্ত্রীর পরদিনই রাজ্যপাল এভাবে স্বাস্থ্য সচেতনতার বার্তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দিলেন কেন? সেই প্রশ্ন ইতিমধ্যেই বিভিন্ন মহল থেকে উঠতে শুরু করেছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২৯ নভেম্বর, ভাইফোঁটায় তাঁর কালীঘাটের বাড়িতে আসার জন্য রাজ্যপালকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। তার পরই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর কায়দাতেই, রাজ্যপালের এই স্বাস্থ্য সচেতনতার বার্তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দিলেন রাজ্যপাল ধনকড়। এটা কি নবান্ন এবং রাজভবনের মধ্যে জমে থাকা বরফ গলার ইঙ্গিত? এখন সেটাই বোঝার চেষ্টা করছে পারিপার্শ্বিক সব মহল।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only