শনিবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৯

আজকের বিশেষ বিশেষ খবর জানুন এক ক্লিকেই


কর্তারপুর করিডর উদ্বোধনে মোদি

বহু-প্রতীক্ষিত কর্তারপুর করিডরের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এই করিডরটি পাঞ্জাবের গুরুদাসপুরের ডেরা বাবা নানক তীর্থস্থানের সঙ্গে পাকিস্তানের দরবার সাহিব গুরুদ্বোয়ারাকে যুক্ত করেছে। শনিবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরসিমরাত কাউর বাদল একটি টুইটের মাধ্যমে এই খবরটি জানিয়েছেন। উদ্বোধনের দিন অর্থাৎ– ৮ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী মোদি একটি ইতিহাস তৈরি করবেন বলে মন্তব্য মন্ত্রীর। 

কংগ্রেসে ফিরলেন অলকা লাম্বা  

প্রাক্তন আম আদমি পার্টি নেতা অলকা লাম্বা কংগ্রেসে ফিরে এলেন। টুইট করে তিনি জানিয়েছেন– ৫ টাকা মূল্যের রসিদ নিয়ে অফিসিয়ালি আমি কংগ্রেসের সদস্য হলাম। গত ৬ সেপ্টেম্বর তিনি আপ ছেড়েছিলেন। এর আগে কংগ্রেস ছেড়ে আপে যোগ দিয়েছিলেন এবং ২০১৫-র দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে চাঁদনি চক থেকে জিতেছিলেন অরবিন্দ কেজরিওয়ালের দলের টিকিটে। আপে যোগ দেওয়ার পূর্বে তিনি ২০ বছর কংগ্রেসের সদস্য ছিলেন।   


মোদির ভাইঝির ব্যাগ-ছিনতাই
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভাইঝি দময়ন্তী বেনের টাকা-পয়সা– নথি খোয়া গেল দিল্লি থেকে। খোদ রাজধানীতে ঘটা এমন কাণ্ডে হতবাক অনেকেই। ঘটনাটি আবার ঘটেছে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বাসভবনের নিকটেই। সিভিল লাইন এলাকায় এক বাইক আরোহী ছোঁ মেরে এসে তাঁর জিনিসপত্র নিয়ে যায়। নিকটবর্তী থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন মোদির ভাইঝি। 

   
নকশাল-অপহরণের কবলে ৩
  
ছত্তিশগড়ের দান্তেওয়াড়ায় দুই সরকারি অফিসার ও এক রোড কন্ট্রাক্টরকে অপহরণ করেছে নকশালরা। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে– শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে পোটালি গ্রাম থেকে এই তিনজনকে কাজ করার সময় তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। তারা প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনার অধীনে একটি রাস্তা তৈরির কাজ করছিলেন। পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। তবে অপহ*তদের কোনও কিনারা করতে পারেনি।     

সহজ ই-ভিসা চিনাদের জন্য

চিনা নাগরিকদের জন্য ই-ভিসার ব্যাপারে বড় ধরনের সুখবর ভারতের পক্ষ থেকে। চিনা প্রধানমন্ত্রী শি জিনপিং সম্প্রতি ভারত সফরে এসেছেন। এই সময়েই বেজিংয়ে ভারতীয় দূতাবাস জানিয়েছে– ২০১৯ সালের অক্টোবর থেকে চিনা নাগরিকরা ভারতে আসার জন্য ই-টুরিস্ট ভিসা (ই-টিভি) পেতে আবেদন করতে পারবেন। এই ই-ভিসা আগামী ৫ বছর একাধিকবার ভারতে আসার ছাড়পত্র দেবে। ৮০ ইউএস ডলার খরচ পড়বে এই ই-ভিসা তৈরি করতে।

গুগল ডুডলে কামিনী রায়

‘সকলের তরে সকলে আমরা/ প্রত্যেকে আমরা পরের তরে।’ কামিনী রায়ের এই কবিতা কে না জানে! শুধু কবি নন– পাশাপাশি তিনি বাংলার প্রথম মহিলা স্নাতক ও সমাজকর্মী। ১৮৬৪ সালের ১২ অক্টোবর অবিভক্ত বাংলার বরিশালে তাঁর জন্ম। শনিবার তাঁর ১৫৫ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে এই বাঙালি মনীষাকে গুগল ডুডলের মাধ্যমে বিশ্ব-দরবারে তুলে ধরে বিশ্বের সর্বাধিক জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন। উল্লেখ্য– কামিনী রায় ১৮৮০ সালে কলকাতা বেথুন স্কুল থেকে এন্ট্রান্স এবং ১৮৮৩ সালে বেথুন কলেজ থেকে এফএ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। প্রথম নারী হিসাবে সংস্টৃñত ভাষায় সাম্মানিক স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন ১৮৮৬ সালে।





একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only