মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৯

জেএনইউ-র ছাত্র নাজিব আহমেদ কোথায়? কলকাতায় গর্জে উঠল ছাত্র সংগঠন এসআইও

জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের নিখোঁজ ছাত্র নাজিব আহমেদের হদিশ জানার দাবি জানাল স্টুডেন্টস ইসলামিক অর্গানাইজেশন অব ইন্ডিয়া(এসআইও)। মঙ্গলবার রাজ্য এসআইও’র তরফে ধর্মতলার ওয়াই চ্যানেলে মানব বন্ধন ও প্রতিবাদ সভার আয়োজন  করে এই দাবি জানানো হয়। নাজিবকে ফিরিয়ে আনার পাশাপাশি নিখোঁজের ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত েগ্রফতারের দাবিসহ মোট চার দফা দাবি জানান এসআইও প্রতিনিধিরা। তাঁরা জানান–এদিন সংগঠনের তরফে কলকাতার পাশাপাশি দেশের কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও দেশর প্রধান প্রধান শহরে ‘নাজিব কোথায়?’ এই শিরোনামে সোচ্চার হয়েছেন সংগঠনকর্মীরা।

জেএনইউ-র বিজ্ঞান শাখার স্নাতকোত্তরের ছাত্র নাজিব আহমেদ ২০১৬ সালের ১৫ অক্টোবর  হস্টেল েথকে নিখোঁজ হয়ে যান। নিখোঁজ হওয়ার আগের দিন রাতে এবিভিপি-র কর্মীরা সম্মিলিত ভাবে নাজিবের উপর আক্রমণ চালায় বলে অভিযোগ এসআইও’র। সংগঠন সদস্য সাবির আহমেদ বলেন– নিখোঁজের দিন নাজিবের মা ফাতিমা নাফিসা দিল্লি পুলিশে ছেলের অপহরণের বিষয়ে এফআইআর করেন। কিন্তু– নাজিবকে খুঁজে েবর করার বিষয়ে দিল্লি পুলিশের আশানুরূপ ভূমিকা না দেখায় নাজিবের মা ওই বছর ২৫ নভেম্বর দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। পরবর্তীতে দিল্লি পুলিশের তরফে সিট গঠন করার পাশাপাশি সিবিআই তদন্তও শুরু হয়। ইতিমধ্যে– এই ঘটনায় তিন বছর পেরিয়ে গেছে। তবুও– আজও নিখোঁজের ঘটনার কোনও সুরাহা হয়নি। 

এদিন সংগঠনের রাজ্য সম্পাদক মহ­ ইমরান আলি বলেন– নাজিব অপহরণের ঘটনা কোনও বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। রাজধানী দিল্লির বুকে দেশের অন্যতম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নিখোঁজের ঘটনার তিন বছরের পরও প্রশাসনের তরফে কোনও সদুত্তর না পাওয়াটাও ভয়ঙ্কর বিষয়। এর পিছনে নির্দিষ্ট রাজনৈতিক সংগঠনের হাত থাকতে পারে বলেও তাঁর অভিযোগ। মহ­ ইমরান আলি আরও বলেন– এই ঘটনার মাধ্যমে মুসলিম ও পিছিয়ে পড়া দলিত সম্প্রদায়ের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে ভীতির পরিবেশ তৈরি করা হয়েছে। যাতে মুসলিম ও দলিতরা উচ্চ শিক্ষা অর্জনে ভয় পায়। 
জামায়াতে ইসলামি হিন্দের রাজ্য সম্পাদক মসিউর রহমান বলেন– আপামর ছাত্র সমাজের উচিত নাজিবকে ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য সোচ্চার হওয়া এবং শিক্ষা প্ররতিষ্ঠান গুলিতে সংখ্যালঘু ও দলিত সম্প্রদায়ের সুরক্ষা ও সুবিচার নিশ্চিত করতে তৎপরতা গ্রহণ করা। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only