মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৯

হরিয়ানার ১১৭ প্রার্থী ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত, ৪৮১ প্রার্থী কোটিপতি!

হরিয়ানায় আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে অংশ নেওয়া ১,১৩৮ জন প্রার্থীর মধ্যে প্রায় ১০ শতাংশ অর্থাৎ ১১৭ জন প্রার্থী ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত। তার মধ্যে প্রায় ৬ শতাংশ অর্থাৎ ৭০ জন প্রার্থীর বিরুদ্ধে আছে গুরুতর ফৌজদারি মামলা। মোট ১,১৩৮ জন প্রার্থী স্বঘোষিত হলফনামা দাখিল করেছেন নির্বাচন কমিশনে। তাঁদের মধ্যে ১১৭ জন প্রার্থী হলফনামায় নিজেরাই কবুল করেছেন তাঁদের বিরুদ্ধে মামলার কথা। হরিয়ানা ইলেকশন ওয়াচ (এইচইডব্লিউ) এবং অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্র্যাটিক রিফর্মস (এডিআর) এই বিষয়ে তথ্য জানিয়েছে। কোনও নির্দিষ্ট দল নয়– প্রায় সব দলের কমবেশি প্রার্থী আছেন এই অভিযুক্ত প্রার্থীদের তালিকায়। কংগ্রেসের ৮৭ প্রার্থীর মধ্যে ১৩ জন– বিএসপির ৮৬ প্রার্থীর মধ্যে ১২ জন– জননায়ক জনতা পার্টির ৮৭ প্রার্থীর মধ্যে ১০ জন– আইএনএলডির ৮০ প্রার্থীর মধ্যে ৭ জন এবং বিজেপির ৮৯ প্রার্থীর মধ্যে ৩ জন নিজেরাই তাঁদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলার কথা উল্লেখ করেছেন হলফনামায়। গুরুতর ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত বিএসপির ৯ জন– কংগ্রেসের ৮ জন– জননায়ক জনতা পার্টির ৬ জন– আইএনএলডির ৬ জন এবং বিজেপির ১ জন প্রার্থী। তাঁদের মধ্যে ৫ ‘কীর্তিমান’ প্রার্থী স্বঘোষিত হলফনামায় মহিলা সংক্রান্ত অপরাধের এবং ২ ‘মহান’ প্রার্থী ধর্ষণের অভিযোগের (আইপিসি ৩৭৬ অনুচ্ছেদ) কথা স্বীকার করেছেন! এখানেই শেষ নয়– খুনের চেষ্টা করার অভিযোগের (আইপিসি ৩০৭ অনুচ্ছেদ) কথা কবুল করেছেন ৫ জন প্রার্থী। ১,১৩৮ জন প্রার্থীর মধ্যে প্রায় ৪২ শতাংশ অর্থাৎ ৪৮১ জন প্রার্থী কোটিপতি! ওই বিত্তবান প্রার্থীদের গড় সম্পত্তির পরিমাণ ৪.৩১ কোটি টাকা! হরিয়ানায় ২০১৪ বিধানসভা নির্বাচনে ১,৩৪৩ প্রার্থীর মধ্যে প্রায় ৪২ শতাংশ অর্থাৎ ৫৬৩ জন প্রার্থী কোটিপতি ছিলেন! ২০১৪ বিধানসভা নির্বাচনে প্রায় ৭ শতাংশ অর্থাৎ ৯৪ জন ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ছিলেন। এডিআর এবং এইচইডব্লিউ জানিয়েছে– অর্থবল ও লোকবল যে নির্বাচনী প্রার্থী হওয়ার ক্ষেত্রে অন্যায্য প্রভাব রাখছে– তাতে সন্দেহ নেই।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only