বুধবার, ৩০ অক্টোবর, ২০১৯

কাশ্মীরে নিহত মুর্শিদাবাদের শ্রমিকদের সহায়তা মন্ত্রী জাকির, সাংসদ খলিলুরের

মুহাম্মদ মুস্তাক আলি, জঙ্গিপুর­:
সংবিধান থেকে জম্মু-কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা রদ হয়েছে মাস তিনেক আগেই। তারপরও কাশ্মীরের মানুষ কতটা শান্ত তা বোঝাতে নিজস্ব ভাবনা দিয়ে ইইউ প্রতিনিধি দলকে কাশ্মীরে ঘুরে দেখানোর প্রক্রিয়া গতকাল মঙ্গলবার দিনই শুরু করেছে বিজেপি নিয়ন্ত্রিত কেন্দ্রীয় সরকার। আর নিয়তির কী পরিহাস! একই দিনে ঘটে গেল বাঙালি শ্রমিকদের উপর নির্বিচারে গুলিবর্ষণ। সূত্রের দাবি– ঘটনায় রফিক সেখ (৫৪)– কামিরুদ্দিন সেখ (৩৮)– মুরসালিম সেখ (২৮)– নইমুদ্দিন সেখ (৪২)– রফিকুল সেখ (৩০) নামে পাঁচ শ্রমিক আততায়ীদের হাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন।
একই ঘটনায় জাহিরুদ্দিন সরকার (২৬) নামে এক শ্রমিক গুলিবিদ্ধ হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি আছেন বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। নিহত এবং আহত শ্রমিকরা মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর মহকুমার সাগরদিঘি থানার বাহালনগর গ্রামের বাসিন্দা।
এই নৃশংস ঘটনার খবরে মুষড়ে পড়েছে গোটা গ্রামটাই। মৃত এবং আহত হতভাগ্য শ্রমিক পরিবারের সদস্যদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠেছে গ্রামের পরিবেশ। বুধবারের দিন নিহতদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করে সমবেদনা জানান জঙ্গিপুর লোকসভার সাংসদ খলিলুর রহমান, রাজ্য সরকারের শ্রম প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন, মুর্শিদাবাদ জেলাপরিষদের মেন্টর মুহাম্মদ সোহরাব, বহরমপুরের সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরি।

এদিনই মন্ত্রী জাকির হোসেন এবং সাংসদ খলিলুর রহমান ব্যক্তি উদ্যোগে নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে যথাক্রমে ২৫,০০০ টাকা ও ৫০,০০০ টাকা প্রাথমিকভাবে এককালীন অনুদান হিসেবে দিলেন। এছাড়াও ভবিষ্যতে সবরকমভাবে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন তাঁরা। 

সর্বশেষ খবর, বেলা সাড়ে ১২টা নাগাদ নিহত শ্রমিকদের দেহ ময়নাতদন্ত শেষে  শ্রীনগর বিমানবন্দর থেকে দিল্লিগামী বিমানে ফিরবে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only