শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯

আমাকে একটা সুযোগ দেওয়া হোক, ক্রীড়ামন্ত্রীকে চিঠি জারিনের


পুবের কলম, নয়াদিল্লি: ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজুর হস্তক্ষেপ চাইলেন এশিয়ান মিটে ব্রোঞ্জ পদক জেতা ভারতের প্রতিভাবান বক্সার নিখাত জারিন। তাঁকেও নিজেকে প্রমাণ করার একটা সুযোগ দেওয়া হোক। এই মর্মে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রীকে চিঠি দিলেন জারিন। যে চিঠিতে তিনি অভিযোগও করেছেন যে, নিয়ম বদল করে ছ’বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন মেরি কমকে সুবিধে পাইয়ে দিচ্ছে ভারতীয় বক্সিং ফেডারেশন (বিএফআই)। জারিন সেই চিঠি পোস্টও করেছেন নিজের ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে। প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে চিনে অনুষ্ঠিত হবে অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন পর্বের লড়াই।
জারিনের বক্তব্য খুব সোজাসাপটা, বক্সিং ফেডারেশনের নিয়মে রয়েছে বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা বা রুপোর পদক জিতলে তবেই দেশের সেই মহিলা বক্সার অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন পর্বে সরসরি অংশ নিতে পারবে। মেরি কম সেখানে জিতেছেন ব্রোঞ্জ। অথচ তাঁকে সরাসরি অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন পর্বে পাঠানো হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের বক্সিং ফেডারেশন। যেটা ঠিক নয় বলে আপত্তি তুলেছেন জারিন। প্রসঙ্গত, জারিন ও মেরি দু’জনেই ৫১ কেজি বিভাগে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। 
২৩ বছরের এই বক্সার চিঠিতে লিখেছেন, ফেডারেশনের থেকে তিনি কোনও বাড়তি সুবিধা চাইছেন না। শুধু নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করার জন্য একটা সুযোগ চাইছেন। অর্থাৎ সোজা কথায় মেরি কম ও তাঁর মধ্যে ট্রায়াল ম্যাচ চাইছেন জারিন। সেখানে যে জিতবে, তাঁকে অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন পর্বে পাঠাক ফেডারেশন। 
নিজের যুক্তির পিছনে কিংবদন্তি আমেরিকান সাঁতারু মাইকেল ফ্লেপসের প্রসঙ্গ টেনে জারিন লিখেছেন, ‘ফ্লেপস অলিম্পিকে ২৩টি পদক পেয়েছেন। অলিম্পিকে আসার আগে তাঁকেও প্রত্যেকবার নিজেকে প্রমাণ দিতে হয়। আমার মনে হয়, সবার ক্ষেত্রেই তেমনটা হওয়া  উচিত।’
ক্রীড়ামন্ত্রীকে চিঠি দিলেও বিএফআই জানিয়েছে, অলিম্পিকে যাওয়া নিয়ে মেরি কমের সঙ্গে একই বিভাগে লড়াই করা জারিনের কোনও ট্রায়াল নেওয়া হবে না। আর একটা ব্যাপারও মনে রাখতে হবে, কোনও দল নির্বাচনে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রক হস্তক্ষেপ করে না। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only