বুধবার, ৯ অক্টোবর, ২০১৯

পুজো মন্ডপে বসে আইনী পরামর্শ দিলেন মহিউদ্দীন, কামাল, কায়েসরা



সর্বজনীন দুর্গা পুজো মন্ডপে বসে চারদিন ধরে দর্শনার্থীদের আইনী পরামর্শ দিলেন বীরভূম জেলার আইনী পরিষেবা কতৃপক্ষের প্যারা লিগ্যাল ভলেনটিয়াররা মহিউদ্দীন আহমেদ, সেখ সালাউদ্দীন, সেখ কায়েসুদ্দীন, মোস্তাফা কামালরা। সঙ্গে ছিলেন শিবদাস মন্ডল, সুজিত মন্ডল, বৈশাখী ব্যার্নাজী, প্রতিমা মন্ডল, নুরুল ইসলামরা। জেলা আদালতের নিয়ন্ত্রনাধীন  জেলা আইনী পরিষেবা কতৃপক্ষের তরফে এবারে সিউড়ী,   বোলপুর, ও রামপুরহাট মহকুমার বিভিন্ন পুজো মন্ডপে আইনী পরিষেবা কতৃপক্ষের ।   তরফে বিভিন্ন পুজো মন্ডপে পুজো কমিটির সহযোগিতায় একটি করে স্টল করা হয়। যেখানে পুজোর কদিন হাজার হাজার মানুষকে তাদের আইনী  সমস্যা থাকলে বিনামূল্যে আইনী পরামর্শ দেন প্যারা লিগ্যাল ভলেনটিয়াররা।  জেলা সদর সিউড়ীতে ইরিগেশন কলোনী, পুলিশ লাইন, কারেকশনাল হোম, বোলপুর জামবুনী সার্ব্বজনীন দূর্গোৎসব  সহ আরো কিছু পুজো মন্ডপে পরিষেবা মিলছে বলে জানালেন বোলপুরের প্যারা লিগ্যাল ভলেনটিয়ার মহিউদ্দীন আহমেদ। তিনি বলেন, পুজো ককদিন হাজার হাজার মানুষ পুজো মমন্ডপে এসেছেন। অনেকের জমি- জায়গা, পারিবারিক সম্পত্তি, দাম্পত্য কলহ সহ নানাবিধ সমস্যা নিয়ে আমাদের স্টলে কথা বলেছেন। প্রতিদিন ৩০-৪০ জন করে এসেছেন তাদের সমস্যার কথা শুনে অনেককে সেখানেই পরামর্শ দেওয়া হয়। আবার অনেকের সমস্যার গুরুত্ব বুঝে আমাদের ফোন নাম্বার দেওয়া হয়। পুজোর পরে পরেই যযোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। পুজো কদিন সাধারন মানুষ যেমন এসেছেন তেমনি শহরের বিশিষ্ট নাগরিক, সমাজসেবী,  শিক্ষক অধ্যাপক, আইনজীবি থেকে পুলিশ আধিকারিকরাও এসে সময় কাটিয়েছেন। বোলপুরের সমাজর্কমী শিক্ষক নুরুল হক, প্রতিভা গাঙ্গুলী, সুমনা মজুমদার বলেন, আমরা বোলপুরের পুজো মন্ডপে গেলাম। বেশ ভালো লাগলো। অনেক মানুষ তাদের সমস্যা সমাধানের জন্য আসছিলেন। সেটাও একটা উৎসব। এই উৎসবে আইনী পরিষেবার স্টল হওয়াই আমরা খুশি। তাছাড়াও পুজো মন্ডপে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও ঐক্যের যে ছবি আমরা দেখছি তাও বেশ আনন্দের বলেন প্রতিভা গাঙ্গুলী, অহনা চ্যার্টাজী। বোলপুর জামবুনী সার্ব্বজনীন দূর্গোৎসব কমিটির সম্পাদক তাপস মন্ডল বাপি বলেন, আইনী কতৃপক্ষ আমাদের মন্ডপে অনেক মানুষকে আইনী সহায়তা দিয়েছে। এতে সাধারন মানুষও উপকৃত হয়েছে। আমাদের পুজো মন্ডপ বেছে নেওয়াই আমরাও খুশি।

 গত বৃহষ্পতিবার পুজো মন্ডপে ফিতে কেটে এই স্টলের উদ্ভোধন করেন জেলা আইনী পরিষেবা কতৃপক্ষের সচিব- বিচারক দেবজৌতি মুর্খাজী। তিনি বলেন, সাধারন মানুষের কাছে আবেদন আপনাদের যার যা সমস্যা আছে এসে জানান। কোন অসুবিধা হবে না। এখানে আইনী পরামর্শ পেতে কোন খরচা করতে হয় না। তাদের কারোর না কারো আইনী সমস্যা থাকতেই পারে। প্যারা লিগ্যাল ভলেনটিয়াররা সেই সব সাধারন মানুষকে আইনী পরামর্শ দেবেন। উল্লেখ্য, দাম্পত্য কলহ, খোরপোষ, মোটর দূর্ঘর্টনা, ব্যাঙ্কে অনাদায়ী ঋন সংক্রান্ত মামলা লোক আদালতের মাধ্যমে দ্রুত নিষ্পত্তি হয়। তাছাড়াও সাধারন মানুষ যাদের বাৎসরিক আয় ১ লাখ টাকার কম তারা হাই কোর্ট সহ রাজ্যের যে কোন আদালতে বিনামূল্যে ন্যায় বিচারের জন্য মামলা করার সুযোগ পাবেন এবং সুপ্রিম কোর্টের ক্ষেত্রে ১ লাখ ২৫ হাজার টাকার কম আয় তারা পাবেন এই সুযোগ।  মহিলাদের আয়ের কোন উর্দ্ধসীমা নেই। সেই বার্তাও দেওয়া হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only