রবিবার, ১৩ অক্টোবর, ২০১৯

রাফালে লেবু-নারকেল, কংগ্রেসের কটাক্ষের জবাব দিলেন রাজনাথ

রাফাল হাতে থাকলে ঘরে বসেই খতম করতে পারতাম জঙ্গি ঘাঁটি­ রাজনাথ

চণ্ডীগড়­ হরিয়ানায় ভোট প্রচারে গিয়ে রবিবার কংগ্রেসকে একহাত নিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। বিজেপি এবার রণনীতি নিয়েছে যে কংগ্রেসকে এমনভাবে েখাঁচা দিতে হবে যাতে একইসঙ্গে পাকিস্তানকে েখাঁচা দেওয়া যায়। রবিবার যে েকৗশলে মোদি মহারাষ্টেÉ কংগ্রেসকে েখাঁচা দেন– সেই েকৗশলই হরিয়ানায় নেন রাজনাথ। মঙ্গলবার শস্ত্র পুজো করেন রাজনাথ। তাঁর সমালোচনায় মুখর হন কংগ্রেস সহ বিরোধীরা। রাফাল ফাইটার বিমানে শত্র&র নজর এড়াতে রাখা হয় লেবু। নারকেলও ফাটানো হয়। ফাইটারের গায়ে লেখা হয় ‘ওম’। এই ছবি ছড়িয়ে পড়ে েসাস্যাল সাইটে। তা নিয়ে নানা মস্করাও করেন নেটিজেনরা। কংগ্রেসের কিছু নেতাও এই ধরণের আচরণের সামালোচনা করেন। তাদের মধ্যে কেউ কেউ বলেন এর ফলে আসলে কুসংস্কারকে প্রশ্রয় দেওয়া হয়েছে। কেউ কেউ বলেছেন– ধর্মনিরপেক্ষ দেশে এমনটা করা ঠিক হয়নি।
রবিবার হরিয়ানায় এই ঘটনাকে প্রচারের হাতিয়ার করেন রাজনাথ সিং। তিনি বলেন– দেশের এই নেতাদের মন্তব্য আসলে পাকিস্তানকে শক্তিশালী করে। প্রচারে ক্ষুব্ধ রাজনাথ বলেন– ‘আমরা নতুন একটি যুদ্ধবিমান পেয়েছি। যা ব্যাপক শক্তিশালী। এটি ব্যবহারের আগে আমরা পুজো করেছি। সেটা জরুরী ছিল। আমি যুদ্ধবিমানের গায়ে লিখেছিলাম ওম। কংগ্রেস সেটা নিয়ে বিতর্ক তৈরি করছে।  আপনারা ওম শ· নিয়ে আপত্তি করছেন? আমরা কি বাড়িতে ওম লিখে রাখি না? খ্রিষ্টানরা কি আমিন বলেন না? মুসলিমরা কি আমিন বলেন না?
কেবল কংগ্রেস নয়– বিরোধীরাও রাজনাথের শস্ত্র পুজোর সমালোচনায় মুখর হয়েছিলেন। কিন্তু হরিয়ানায় যেহেতু কংগ্রেসের জমি অনেকটাই মজবুত– তাই এদিন রাজনাথ মূলত নিশানা করলেন কংগ্রেসকেই। প্রতিরক্ষামন্ত্রীর এই কার্যকলাপের নিন্দা করেছিলেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে। বিষয়টিকে তিনি ‘তামাশা’ বলে কটাক্ষ করেছিলেন। কংগ্রেস নেতা উদিত রাজ প্রশ্ন তোলেন– ‘লেবু এবং নারকেল কীভাবে একটি যুদ্ধবিমানকে রক্ষা করবে?’ এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার বলেন– ‘যখন রাফালের সামনে লেবু এবং লঙ্কা ঝুলবে তখন লোকে কি বলবে।’
৩৬ টি রাফলের মধ্যে ৮ অক্টোবর প্রথম রাফালটি ভারতের হাতে তুলে দেয় ফ্রান্স। বিজয়া দশমির দিন তাতে ‘শস্ত্রপুজো’ করেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। রবিবার বিরোধীদের মনে করিয়ে রাজনাথ বলেন– ‘আমাদের হাতে যদি সেদিন রাফাল থাকত তাহলে বালাকোটে বিমান হানার জন্য পাকিস্তানে ঢুকতে হত না। ভারতে বসেই আমরা জঙ্গিঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিতে পারতাম।’
খাট্টার সরকারের প্রশংসা করে রাজনাথ বলেন– ৫ বছরে এই সরকার বহু উন্নয়নমূলক কাজ করেছে। তবে রাজনাথের ভাষণের প্রধান অংশ ছিল রাফাল নিয়ে কংগ্রেসকে নিশানা। জনসভায় তিনি বোঝাতে চান কংগ্রেসের মন্তব্য  আসলে পাকিস্তানকেই খুশি করবে। লোকসভা ভোট েশষ হলেও বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের প্রচারে একই সুর লক্ষ করছেন রাজনৈতিকমহল।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only