সোমবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৯

বাঙালির বিশ্বজয়, অর্থনীতিতে নোবেল কলকাতার অভিজিতের

বাঙালির বিশ্বজয়। অমর্ত্য সেনের পর অর্থনাীতিতে নোবেল পেলেন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গেই ২০১৯ সালে অর্থনীতি নোবেল পাচ্ছেন এসথার ডুফলো, মাইকেল কার্মার।দারিদ্রতা দূরীকরণের পথ খুঁজতে দিশা দেখিয়ে তাঁরা নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন।রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস সোমবার অর্থনীতিতে নোবেলজয়ীদের নাম ঘোষণা করে। আগামী ১০ ডিসেম্বর সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে।

 ফোর্ড ফাউন্ডেশনে অর্থনীতির আন্তর্জাতিক অধ্যাপক অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় ৷১৯৬১ সালে কলকাতায় জন্ম বিনায়কের। সাউথ পয়েন্ট স্কুলে পড়াশোনা অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৷পড়েছেন প্রেসিডেন্সি ও জেএনইউতেও  ৷ এরপর হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি করেন তিনি ৷ ‘আব্দুল লতিফ জামিল প্রভার্টি অ্যাকশন ল্যাব’-এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা অভিজিৎবাবু দারিদ্র নিয়ে হাতে-কলমে কাজ করেছেন। দারিদ্রের নানা দিক নিয়ে স্ত্রী এসথের ডুফলোর সঙ্গে লেখা ‘পুওর ইকনমিক্স’ বইটিও বিশ্বময় সুনাম কুড়িয়েছে।নোটবন্দীর সময় তিনি মোদির সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছিলেন। তাঁর মত ছিল, মোদির এই ঘোষণার পরে তাঁর মতোই বিশ্বের অর্থনীতিবিদের মহলকে খানিকটা হতচকিত করে দিয়েছে। নোটবাতিলের পরে কেনই বা দু’হাজার টাকার নোট বাজারে ছাড়া হল তাও অভিজিৎবাবুর কাছে বোধগম্য নয়।কিন্তু মোদি যে কালো টাকার কথা বলে নোট বাতিলের পথে হাঁটলেন তা সফল হবে না বলেই ধারণা ছিল তাঁর। পরে তা অবশ্য সত্য প্রমাণিত হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only