রবিবার, ২৭ অক্টোবর, ২০১৯

দোতারা ও সুরমণ্ডলের সংমিশ্রণে লোকসঙ্গীত শিল্পীর আবিষ্কার 'তারা-মণ্ডল'

মনের বাঁধনের সাথে সুরের বাঁধনের মিল হলেই সৃষ্টি হয় আলোর বেণু! তারের বাঁধনকে দৃঢ় করে সুরমণ্ডলের জন্য ১৬ টি তার। তার মধ্যে এক সপ্তক সুরের জন্য ১২ টি তার বেঁধেছে। বাকি চারটি তার দোতারার সঙ্গে এক দেহে যুগলবন্দীর মতো সংযোজিত করা হয়েছে। আর তার লাগোয়া দোতারার জন্য অতিরিক্ত আরও চারটি তারের সংযোজনে তৈরি হয়েছে তারা মণ্ডল যন্ত্র। 

জানা গেছে,  লোক সঙ্গীত ও ধ্রূপদী সঙ্গীতের মেলবন্ধনে শিল্পীর আবিষ্কার তারা মণ্ডল! সত্যিই তাই। লোকসঙ্গীতের অন্যতম অপরিহার্য যন্ত্রানুষঙ্গ দোতারা এবং শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের উপস্থাপনের জন্য সুরমণ্ডল। এই দুইয়ের যুগলবন্দী কেমন হবে, তা একই দেহে এই নব আবিষ্কার 'তারা-মণ্ডল' না শুনলে বোঝা যাবে না! পাতলা কাঠের আবরণের উপর ২০টি তারের বাঁধনেই তারা মণ্ডলের সুরমূর্ছনা।
     
বীরভূমের প্রত্যন্ত গ্রাম কালীপুরের বাসিন্দা বাউল শিল্পীর নতুন তার যন্ত্র বানিয়ে সাড়া ফেলে দিয়েছেন। ৬৬বছরের প্রবীণ বাউল শিল্পী নিতাই দাস বাউলের আগে কাঠের বাটি দিয়ে দোতারা, বিশাল আকারের তানপুরা বানিয়েছেন আপন মুন্সীয়ানায়। এবার তার নতুন সৃষ্টি তারা মণ্ডল। 

বাউল জগতে অতি পরিচিত নাম নিতাই দাস বাউল। পূর্ণ দাসের অন্যতম স্নেহধন্য তিনি। পঞ্চাশ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাউল সাধনায় ব্রত সিউড়ির কালিপুরের এই খ্যাপা বাউল নিতাই দাস। সাদামাটা আটপৌরে সাধারণ পরিবারে জন্ম শিল্পীর। বাপ-কাকাদের হাত ধরেই বাউল চর্চায় সঁপেছেন নিজেকে।বাউল একনিষ্ঠ সাধক এই নিতাই দাস বাউল জীবন সায়াহ্নে এসে নতুন করে শিখেছেন ধ্রূপদী খেয়াল । শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের প্রতি অমোঘ টান থেকেই ষাটোর্ধেও তিনি হয়েছেন 'খেয়ালে'র শিক্ষার্থী। আর তা থেকেই তিনি পেয়েছেন নতুন সৃষ্টির নয়া উদ্যম। যার ফল ‘তারা-মণ্ডল’। 

ছোট্ট অথচ শক্ত কাঠের পাতলা ফ্রেমের মধ্যে প্লাইউড বসিয়ে যন্ত্রটির কাঠামো করেছেন। যন্ত্রটির বৈশিষ্ট্য হল একটি যন্ত্রের মধ্যে দোতারা এবং সুরমন্ডলের সংমিশ্রণ ঘটিয়েছেন বাউল সম্রাট পূর্ণ দাসের স্নেহ ধন্য এই বাউল শিল্পী। নিতাই দাস নিজে বাউল শিল্পী একই সঙ্গে হিন্দুস্থানী ধ্রূপদী শিল্পী। ফলে  ধ্রূপদী গানে তার যন্ত্র হিসাবে সুর মন্ডল যেমন ব্যবহার করেছেন। তেমনই বাউল শিল্পী হিসাবে দোতারা হাতে বাউল রাজ্যে তার অবাধ বিচরণ। ইতিমধ্যেই জাপান সহ একাধিক দেশে তার বাউল গান নিয়ে পাড়ি দিয়েছেন শিল্পী। এদেশের একাধিক রাজ্যে তার নিয়মিত অনুষ্ঠান লেগে আছে। তার মাঝেই যখন গ্রামের বাড়িতে ফেরেন তখন শিল্পী মন খুঁজতে থাকে নতুন কিছু উদ্ভাবনের। সেই আকাঙ্ক্ষা থেকেই হাতুড়ি ও বাঁটালি হাতে শুরু করেন কাঠ কাটতে। কাঠের কাঠামো তৈরি  এই  অনবদ্য যন্ত্র । 
      ইতিমধ্যেই রাজ্যের একাধিক সন্মানে ভূষিত বাউল শিল্পী নিতাই দাস বাউলের কথায়, "আমার সাধনার মূল বিষয় খেয়াল এর সঙ্গে বাউলের সংমিশ্রন ঘটানো। সেই ভাবনা থেকেই দোতারার তারা এবং সুরমন্ডলের  যুগল মিলনেই আমার তৈরি তার যন্ত্র 'তারা-মণ্ডল'। যে যন্ত্রে এক সঙ্গে শাস্ত্রীয় ও লোক সঙ্গীত পরিবেশিত হবে।এই যন্ত্র তৈরি আমার সারা বছরের গবেষনার সুফল। আমি আনন্দে মশগুল "
      দেখতে সুর মন্ডলের মত। অথচ হাল্কা সহজে অল্প জায়গায় বয়ে নিয়ে যাওয়া যাবে এই অভিনব যন্ত্র। নিতাই দাস বাউল এর গানের তালিম শুরু হয় ছোট থেকেই বাবা গতি কান্ত দাসের হাত ধরেই গানের শিক্ষা। স্কুলে পড়ার সময় থেকেই তার মঞ্চে গান করা শুরু। রেডিওর নিয়মিত শিল্পী নিতাই দাস বাউল ইতিমধ্যেই বহু সন্মানে ভূষিত হয়েছেন। তার তৈরি যন্ত্র দেখে সমঝদার রসিক শিল্পীরা বরাত দিতে শুরু করেছে এই যুগলবন্দী তার যন্ত্রের।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only