শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯

মোদি-ইমরান সবুজ সংকেত দিলেই হবে ভারত-পাক সিরিজ, ইঙ্গিত সৌরভের


পুবের কলম, কলকাতা: এখনও সরকারিভাবে বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট হননি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ২৩ অক্টোবর বোর্ডের নির্বাচনের পর প্রেসিডেন্ট হবেন মহারাজ। যদিও দায়িত্ব নেওয়ার আগে থেকে নিজের বিভিন্ন লক্ষ্যের কথা জানিয়ে এসেছেন দাদা। সে ধোনি ইস্যুতে কোহলি-নির্বাচকদের সঙ্গে কথা হোক বা প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের উন্নতি সাধন। তবে তিনি প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর ভারত-পাক সিরিজ কী হবে, এটাই ক্রিকেটে মহলে এখন সবচেয়ে চর্চিত বিষয়। 
১৯৮৯ সালের পর ২০০৪ সালে সৌরভের নেতৃত্বেই ভারতীয় ক্রিকেট দল সিরিজ খেলতে গিয়েছিল পাকিস্তানে। ’৯৯ সালের কার্গিল পরবর্তী সময়ে সেই সিরিজ ছিল যতটা না ক্রিকেটীয়, তার চেয়ে অনেক বেশি কূটনৈতিক পদক্ষেপ। সেই তিনিই, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এখন বিসিসিআই-এর সভাপতি। প্রত্যাশিতভাবেই তাঁর কাছে প্রশ্ন গিয়েছিল, এবার কি তাহলে ভারত পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক সিরিজ হবে? সেই প্রশ্নে মুখ খুললেন মহারাজ। জানিয়ে দিলেন ভারত-পাকিস্তান দু’দেশের সিরিজ হবে কি না, তা ঠিক করবেন দু’দেশের প্রধানমন্ত্রী। এ দিন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘এই ব্যাপারটা আপনারা গিয়ে মোদিজি এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে জিজ্ঞেস করুন।’ কলকাতায় এ দিন সৌরভ বলেন, ‘এই সিরিজ হবে কি হবে না এটা দু’টো দেশের ব্যাপার। এই ব্যাপারে আমরা কোনও উত্তর দিতে পারব না।’ আগামী ২৩ তারিখ আনুষ্ঠানিকভাবে বোর্ড সভাপতির দায়িত্ব নেবেন দাদা। মুম্বইয়ে নির্বাচন প্রক্রিয়া শেষ করে মঙ্গলবার কলকাতায় ফিরেছেন। সে দিনই জানিয়ে দিয়েছিলেন তাঁর মূল লক্ষ্য, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে আরও বেশি করে গুরুত্ব দেওয়া। একইসঙ্গে সামনের বছর রয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তাই পাকিস্তানের সঙ্গে সিরিজের প্রশ্নকে কার্যত স্টেপ আউট করে মাঠের বাইরে বার করে দিয়েছেন বোর্ড সভাপতি হতে চলা সৌরভ। পুলওয়ামা পরবর্তীতে ভারত-পাক সম্পর্ক তলানিতে গিয়ে ঠেকেছিল। তার উপর কাশ্মীর থেকে বিশেষ সাংবিধানিক মর্যাদা প্রত্যাহারের পর নয়াদিল্লি-ইসলামাবাদ কূটনৈতিক চাপান-উতোর আরও তুঙ্গে ওঠে। আন্তর্জাতিক মহলে ভারতের বিরুদ্ধে নালিশ করাকে কার্যত রুটিনে পরিণত করে ফেলেছে পাকিস্তান। এর মধ্যে শ্রীলঙ্কা টিম গিয়েছিল পাকিস্তান সফরে। কিন্তু ২০০৮ সালে শ্রীলঙ্কার টিম বাসে জঙ্গি হামলার ঘটনার কথা মনে করে মালিঙ্গা, ম্যাথিউসদের মতো একাধিক খেলোয়াড় যাননি পাক সফরে। তখনও পাক ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, ভারতের চাপেই নাকি শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাররা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যদিও লঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড পাক বোর্ডের এই কথাকে ‘বোগাস’ বলে উড়িয়ে দিয়েছিল। তবে সৌরভ পাক সিরিজের ব্যাপারে নিজের কোর্ট থেকে বল প্রথম দিনই পাঠিয়ে দিলেন দিল্লির দিকে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only