শুক্রবার, ৪ অক্টোবর, ২০১৯

আমেরিকায় ই-সিগারেট সেবন করে ১৮ জনের মৃত্যু, হাজারের বেশি অসুস্থ


আমেরিকায় ই-সিগারেট সেবন করে ইতিমধ্যে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। সরকারী পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বর্তমানে আরো প্রায় ১ হাজারের বেশি অসুস্থ ই-সিগারেট ব্যবহারকারী ফুসফুসের জটিল রোগে আক্রান্ত। বৃহস্পতিবার মার্কিন স্বাস্থ্য দফতর একথা জানিয়েছে। তবে স্বাস্থ্য আধিকারিকরা গত জুন মাস থেকে তদন্ত শুরু করলেও এই রোগের সঠিক কারণ অনুসন্ধান করতে পারেননি।

গত মাসে নর্থ ক্যারোলিনার ক্লিনিকের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, এয়ারোসোলাইজড তেল এবং চর্বিজাতীয় পদার্থ গ্রহণ করার ফলে নিউমোনিয়া হয়ে থাকে। তাদের আরও একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, ফুসফুস আক্রান্ত হওযার জন্য বিষাক্ত ধোঁয়া দায়ী।

মার্কিন স্বাস্থ্য দফতরের ডিজিজ কন্ট্রোল এণ্ড প্রিভেনশন বিভাগের আধিকারিক আন্নি ছুচাট জানান, ই-সিগারেট অথবা ধোয়া জাতীয় পদার্থগুলিতে বিষাক্ত নিকোটিন থাকে যা ফুসফুস রোগের প্রধান কারণ।
নতুন রোগীর সংখ্যা নিয়ে মার্কিন স্বাস্থ্য দফতর গত দুপ্তাহ আগে একটি প্রতিবেদশ প্রকাশ করেছে। 

গত সপ্তাহে ফুসফুস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১,০৮০ জন থেকে বেড়ে ১২৭৫জন হয়ে গিয়েছে। তাদের মধ্যে ৭৮ শতাংশ টেরাহাইড্রোক্যানাবিনল (টিএইচসি)বিহীন অর্থাৎ তামাকবিহীন পণ্য ব্যবহার করতো, ৩৭ শতাংশ নিষিদ্ধ টিএইচসি পণ্য ব্যবহার করতো। ১৭ শতাংশ রোগী বলছে, তারা তামাক জাতীয় পণ্য ব্যবহার করতেন। রোগীদের মধ্যে ৭০ শতাংশই পুরুষ। তাদের সকলের বয়স ৩৫ বছরের কম।

টিএইচসি হল গাঁজার প্রধান উপাদান। ২০০৬ সাল থেকে আমেরিকায় ই-সিগারেট ব্যবহার শুরু হয়। সম্প্রতি একটি রিপোর্টে জানা গিয়ে ছিল স্কুল শিক্ষার্থীদের মধ্যে ই-সিগারেট ব্যবহার করার প্রবণতা বেশি লক্ষ্য করা যায়। গত সেপ্টেম্বরে আমেরিকায় ই-সিগারেট ব্যবহার নিষিদ্ধ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only