শনিবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯

ঘুষের নেওয়াতে শীর্ষের রয়েছে যে দেশগুলি




  
পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক, ওয়াশিংটন: সম্প্রতি ঘুষ দেওয়া-নেওয়া নিয়ে তালিকা প্রকাশ করেছে ট্রেস ইন্টারন্যাশনাল।  মার্কিন এই সংস্থা ঘুষবিরোধী সংগঠন হিসাবে পরিচিত।রয়েছে ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তানের নামও। ২০০ দেশের মধ্যে পর্যালোচনা করে এই তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। 

সরকারের সঙ্গে ব্যবসায়িক চুক্তি, ঘুষ বিরোধী তত্ব, সরকারি চাকুরিতে স্বচ্ছতা এভং দুর্নীতি পর্যবেক্ষণ প্রকাশে জনগণের সক্ষমতা ও গণমাধ্যমের ভূমিকা-এই চারবিষয়ে ভালো-মন্দের বিচার করে এই তালিকা তৈরি করা হয়েছে। ১-১০০'র মধ্যে স্কোরের ভিত্তিতে ঘুষের ঝুঁকি পরিমাপ করা হয়েছে। এই সূচকে ২০০টি দেশের অবস্থান নির্ধারণ করা হয়েছে।ভালো-মন্দের বিবেচনায় ১ থেকে ১০০ মধ্যে যে দেশের স্কোর যত বেশি সেই দেশ ঘুষের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ। যে দেশের স্কোর সব থেকে কম, তাতে সেই দেশে ঘুষে ঝুঁকিও কম।

১-১০০ মধ্যে ভালোমন্দের বিচারে ভারতের স্কোর ৪৮। তালিকায় ৭৮ তম স্থান পেয়েছে। অন্য দিকে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের স্কোর ৬২ এবং ৭২। তালিকায় তারা ১৭৮ ও ১৫৩ তম স্থান পেয়েছে।


কিন্তু তালিকার শীর্ষে রয়েছে সোমালিয়ার নাম। ট্রেস ইন্টারন্যাশনালের সূচকের নিরিখে সোমালিয়ার স্কোর ৯৮। অন্যদিকে ঘুস দেওয়া-নেওয়ার ক্ষেত্রে উত্তর আফ্রিকার আরও একটি দক্ষিণ সুদানেরও নাম রয়েছে। তালিকায় দ্বিতীয় শীর্ষ ঘুষখোর দেশ হিসাবে স্কোর ৯২। এর পরেই তৃতীয় স্থানে রয়েছে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশ উত্তর কোরিয়ার নাম। রাষ্ট্রটি স্কোর ৮৬। লেনদেনের ঝুঁকি রয়েছে এই দেশটি। এর পর আছে যুদ্ধ বিধ্বস্ত ইয়েমেন (৮৫), ভেনেজুয়েলা (৮৫), চাড (৮৪), লিবিয়া (৮২), তুর্কিমেনিস্তান (৮২), ইকুয়েটোরিয়াল গিনি (৮২), ডিআর কঙ্গো (৮২)নাম।

কম ঝুঁকিপূর্ণ দেশের তালিকায় প্রথম পাঁচে যে দেশগুলি রয়েছে সেগুলি হল- নিউজিল্যান্ড ( পয়েন্ট), নরওয়ে ( পয়েন্ট), ডেনমার্ক ( পয়েন্ট), সুইডেন ( পয়েন্ট) এবং ফিনল্যান্ড ( পয়েন্ট)

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only