বুধবার, ৬ নভেম্বর, ২০১৯

কাজে অনিয়ম নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ পেল তারাপীঠ উন্নয়ন পর্ষদের বৈঠকে




পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: ঠিকাদারি কাজে অনিয়ম নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ পেল তারাপীঠ উন্নয়ন পর্ষদের বৈঠকে। এনিয়ে তীব্র বাদানুবাদ শোনা যায় ঠিকাদার অনিয়ম ঘিরেই। সূত্রের খবর,  বুধবার দুপুরে তারাপীঠ রামপুরহাট উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের বৈঠকে বেশ কিছুকাজের অনিয়ম নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ পায়।  তবে বেশ কিছু ঠিকাদারকে শোকজ করার কথা শোনা গেছে। তবে তার সংখ্যা জানা যায় নি।

এদিন তারাপীঠের নিজস্ব অফিসে বৈঠক শুরু করেন টিআরডিএর কর্মকর্তারা। সেখানে সিইও শ্বেতা আগরওয়াল তথা রামপুরহাট মহকুমা শাসক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন চেয়ারম্যান তথা কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, সাংসদ সদস্যা শতাব্দী রায়, ভাইস চেয়ারম্যান সুকুমার মুখোপাধ্যায়, কর্তৃপক্ষের সদস্য তথা তৃণমূলের রামপুরহাট মহকুমার পর্যবেক্ষক  ত্রিদিব ভট্টাচার্য, দপ্তরের ইঞ্জিনিয়ার প্রমুখ। এদিন বৈঠক শুরুর প্রথমে টিআরডিএর অধীনে চলা বেশ কিছু কাজের পর্যালোচনা শুরু হয়। প্রায় ঘন্টাখানেক ধরে চলে সেই বৈঠক। পরে ভিতরে বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা ঠিকাদারদের বৈঠকে ডাকা হয়। কিছুক্ষণ বৈঠক চলার পর হঠাৎই চিৎকার শুরু হয়। বাইরে থেকে কান পেতে শোনা যায়, ১৭ লক্ষ টাকার একটি কাজ নিয়ে অনিয়ম করায় এক ঠিকাদারকে বকাবকি করছেন কেউ।

বৈঠক শেষে বেরিয়ে আসার পর এব্যাপারে শতাব্দী রায়কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, যে উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে সেগুলি কী অবস্থায় আছে সেটা আলোচনা করা হল। কিছু অনিয়ম ধরা পড়েছে। সেগুলি কিছু ত্রুটি আছে কিনা দেখা হচ্ছে। অন্যায়কারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বলব।

অন্যদিকে টিআরডিএর চেয়ারম্যান আশিস বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বিভিন্ন কাজের অগ্রগতি ও রিকুটমেন্ট নিয়ে আলোচনা হয়েছে। রামপুরহাটে সুইমিংপুলটি ট্রেণ্ডার দিয়ে চালু করার ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সেখানে নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া নিশ্চিতপুরের শ্রীফলা রোড যে কাজটা অর্ধেক হয়ে আছে। সেটা পুনরায় শুরু হবে।

আবার কিছু রাস্তা সংস্কারের ক্ষেত্রে টেকনিক্যাল সমস্যা হয়েছে। সেই বিষয়টিও আলোচিত হয়েছে।

সূত্রের খবর, যে অনিয়মগুলি উঠেছে সেব্যাপারে সিইওকে পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে। সেই মোতাবেক যে সমস্ত ঠিকাদারের বিরুদ্ধে অনিয়ম উঠেছে তাঁদের শোকজের চিঠি ধরিয়ে দিয়েছেন তিনি।

সূত্রের খবর  নির্দেশ মোতাবেক সিইও তথা মহকুমা শাসক শ্বেতা আগরওয়াল বিভিন্ন কাজের টাকা মিটিয়ে দেওয়ার আগে চেকিং করছেন। অনিয়মের ক্ষেত্রে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু কতজনকে এদিন শোকজ করা হয়েছে তা পুরোটাই টিআরডিএর আভ্যন্তরিন বিষয়, বলে মিডিয়ার সামনে কোন মন্তব্য করতে চান নি তিনি। এমনকি পরে ফোন ধরেন নি বা মেসেজ পাঠালে তার উত্তর দেন নি।  সূত্রের খবর,বেশিরভাগ অনিয়ম হয়েছে রাস্তা নির্মান ঘিরে। অধিকাংশ রাস্তা বরাদ্দ অর্থমতো নির্মাণ করা হয়নি। কোথাও আবার রাস্তা দৈর্ঘ্য ও প্রস্তে কম করা হয়েছে। এছাড়া রাস্তার মাণ নিয়ে  প্রশ্নচিহ্ন উঠেছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only