বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯

জেএনইউ-র ছাত্র আন্দোলনের জেরে আংশিক কমানো হল হোস্টেলের ফি


পুবের কলম, ওয়েব ডেক্স: জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএনইউ) ছাত্র আন্দোলনের জের। আংশিক কমানো হল হোস্টেলের ফি। কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের অধীন শিক্ষাসচিব আর সুব্রহ্মণ্যম টু্যইট করে জানান, এক্সিকিউটিভ কমিটির বৈঠকে  অন্যান্য চিন্তাভাবনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পাশাপাশি বিক্ষুব্ধ পডYয়াদের কাছে আর্জি জানান, আন্দোলন প্রত্যাহার করে ক্লাসে ফিরে যাওয়ার জন্য।
সোমবার ছিল জেএনইউ-এর সমাবর্তন অনুষ্ঠান। ওই অনুষ্ঠানেরদিনই শুরু হয় হোস্টেলের ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচি। হোস্টেলের ফি একধাক্কায় ৩০০ শতাংশ বাড়িয়ে দেওয়া হয়। জল কামান চালিয়ে বিক্ষোভকারীদের বাসে তুলে অন্যত্র পাঠিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেও শেষ রক্ষা হয়নি। ঘণ্টা ছয়েক অডিটোরিয়ামে আটকে থাকার পর সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসতে হয় কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রককে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের সভাপতি ঐশী ঘোষের সঙ্গে কথা বলে পড়ুয়াদের সমস্যা মেটানোর প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলে ওইদিন বিকেলে বিক্ষোভ প্রত্যাহার করে নেন পড়ুয়ারা।
সেদিনের ওই আন্দোলনের চাপে পিছু হঠতে বাধ্য হল কেন্দ্র। বুধবার কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের অধীন শিক্ষাসচিব আর সুব্রহ্মণ্যম ট্যুইট করে জানান, এক্সিকিউটিভ কমিটি এবং অন্যান্য সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পাশাপাশি শিক্ষাসচিব লেখেন, বৈঠকে অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহায়তা দেওয়ার জন্য একটি প্রস্তাবও গৃহিত হয়। একইসঙ্গে দরিদ্র পরিবারের শিক্ষার্থীদের জন্য একটি প্রকল্পর ঘোষণাও করা হয়।
উল্লেখ্য ফি বৃদ্ধি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বিরোধ বেশ কয়েকদিন ধরেই চলছে। নতুন বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, ১৭০০টাকা সার্ভিস চার্জ দিতে হবে পড়ুয়াদের। আগে এই চার্জ ছিল না। সিঙ্গল রুমে থাকার ভাড়া ২০টাকা থেকে বেড়ে হয় ৬০০টাকা। ডবল রুমের ভাড়া ১০টাকা থেকে বেড়ে করা হয় ৩০০ টাকা। ছাত্র সংসদের বক্তব্য, এরফলে গরিব পড়ুয়ারা সমস্যায় পড়বে। এই নিয়ে কয়েকদিন ধরেই বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন বিক্ষুদ্ধরা। কিন্তু কর্তৃপক্ষ তাতে আমল না দেওয়ায় সমাবর্তনের দিনই প্রতিবাদের সিদ্ধান্ত নেন তারা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only