মঙ্গলবার, ২৬ নভেম্বর, ২০১৯

সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা খেলো বিজেপি শিবির, আগামীকালই আস্থাভোটের মুখোমুখি হতে হবে মহারাষ্ট্র সরকারকে



পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক :  সুপ্রিম কোর্টে মহারাষ্ট্রের বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকার ধাক্কা খেয়েছে। আগামীকাল বুধবারই বিধানসভায় তাঁদেরকে সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিতে হবে। আজ (মঙ্গলবার) সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এন ভি রমণ, বিচারপতি অশোক ভূষণ ও বিচারপতি সঞ্জীব খান্না সমন্বিত বেঞ্চ এসংক্রান্ত রায় দিয়েছে।

গত শনিবার সাত সকালে রাজ্যপাল ভগত সিং কোশিয়ারির কাছে মুখ্যমন্ত্রীর পদে বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিস এবং উপ-মুখ্যমন্ত্রীর পদে শপথ নেন এনসিপি’র একাংশের নেতা অজিত পওয়ার। কিন্তু ওই প্রক্রিয়াকে ‘অবৈধ’ দাবি করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় শিবসেনা-এনসিপি-কংগ্রেসের জোট।

আজ আদালত জানায়, মহারাষ্ট্রে এখনও বিধায়কদের শপথগ্রহণ হয়নি। অবিলম্বে শপথগ্রহণের জন্য প্রোটেম স্পিকার নির্বাচন করতে হবে। প্রোটেম স্পিকারই বিধায়কদের শপথ বাক্য পাঠ করাবেন এবং তিনিই আস্থা ভোট পরিচালনা করবেন। কোনও গোপন ব্যালট নয়, আস্থাভোট প্রক্রিয়া সরাসরি সম্প্রচার করতে হবে বলেও আদালত নির্দেশ দিয়েছে।

এদিন সুপ্রিম কোর্টের রায় জানার পরে এনসিপি নেতা নবাব মালিক বলেন, ‘বিজেপির খেলা শেষ।’  তাঁর মতে, ভারতীয় গণতন্ত্রের ইতিহাসে মঙ্গলবারের দিনটি একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে।

আজ আদালতের রায়ের পরে শিবসেনা-কংগ্রেস-এনসিপি জোট উৎসাহিত হয়েছে। আস্থাভোটে ফড়নবিস সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণে ব্যর্থ হবে বলে তাঁরা মনে করছেন। অন্যদিকে,  তড়িঘড়ি সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিতে হওয়ায় বিজেপি ওই রায়ে অস্বস্তিতে পড়েছে এবং তাঁরা বড় ধাক্কা খেয়েছে বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন। এরফলে বিধায়ক কেনাবেচার বিশেষ সুযোগ থাকল না বলে তাঁরা মনে করছেন।

মহারাষ্ট্রে সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে কোনও দলই এককভাবে  সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় সরকার গঠন নিয়ে সেখানে রাজনৈতিক সঙ্কট সৃষ্টি হয়। রাজ্যটিতে এতদিন বিজেপি-শিবসেনা জোট সরকার ক্ষমতাসীন ছিল। কিন্তু সাম্প্রতিক নির্বাচনে ফল প্রকাশের পরে মুখ্যমন্ত্রী পদ ও ক্ষমতার ভাগাভাগি নিয়ে দু’দলের মধ্যে দ্বন্দ্বের জেরে ওই জোট ভেঙে যায়। এরপরেই রাজ্যটিতে বিজেপিকে বাদ দিয়ে শিবসেনা-এনসিপি-কংগ্রেস জোটের বিকল্প সরকার গঠন করার তোড়জোড় শুরু হয়। কিন্তু গত শনিবার সাতসকালে কার্যত সবার অলক্ষে আচমকা সেখানে বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকার শপথ নেওয়ায় বিরোধীরা ওই প্রক্রিয়াকে অবৈধ বলে অভিহিত করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only