শুক্রবার, ৮ নভেম্বর, ২০১৯

‘ইন্ডিয়া’স ডিভাইডার ইন চিফ’-এর লেখক আতীশ তাসির ওসিআই কার্ড বাতিল করল কেন্দ্র



পুবের কলম ওয়েব ডেক্স: বিখ্যাত লেখক আতীশ তাসির ‘ওভারসিজ সিটিজেন অফ ইন্ডিয়া’ (ওসিআই) কার্ড বাতিল করল কেন্দ্রীয় সরকার। কারণ হিসাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন, লেখকের বাবা পাকিস্তান বংশোদ্ভুত। সেই পরিচয় গোপন করেছিলেন অতীশ তাসির। লেখকের ওসিআই কার্ড বাতিল করায় জোর সমালোচনা শুরু হয়েছে নানান মহলে।

টাইম ম্যাগাজিন-এ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন লিখেছিলেন আতীশ তাসির। ঘটনা হল, সেই প্রতিবেদন মোদিকে প্রশংসা করে নয়। বরং তিনি তাঁর  প্রতিবেদনের কভারের নাম-ই দিয়েছিলেন ‘ইন্ডিয়া’স ডিভাইডার ইন চিফ’। অনেকেই মনে করছেন, মোদিকে বিভেদের মুখ বলাই কি কাল হল আতীশের? বছর ৩৮-এর এই লেখকের ওসিআই কার্ড বাতিল হতেই নানা মহলে ঘুরপাক খাচ্ছে এই প্রশ্ন। সমালোচনার  ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়াতেও। তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক এই যুক্তি মানতে নারাজ। তাদের দাবি, কার্ড বাতিল হওয়ার সঙ্গে লেখালেখির কোনও সম্পর্ক নেই। লেখকের বাবা পাকিস্তান বংশোদ্ভুত। সেই পরিচয় গোপন করেছিলেন অতীশ তাসির।

লেখকের ওসিআই কার্ড বাতিল করার নিয়ে বিতর্ক এখানেই শেষ হয়নি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র বসুধা গুপ্ত ট্যুইটারে দাবি করেন, ওসিআই বা পিআইও বিতর্কের জবাব দেওয়ার জন্য তাসিরকে বলা হয়েছিল। কিন্তু তাসির জবাব দেননি। যদিও আতীশ তাসির সেই দাবিকে অসত্য বলে পাল্টা অভিযোগ করেছেন, এমন কোনও কিছুই তাঁকে বলা হয়নি। জবাব দেওয়ার জন্য তাঁকে ২১দিন নয়। মাত্র ২৪ ঘণ্টা সময় দেওয়া হয়েছিল। তাসির দাবি, ‘কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে আমি এখনও কোনও কিছু শুনিনি’।

অন্যান্যদের পাশাপাশি ঘটনায় সরব কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর। ট্যুইটারে তিনি লেখেন, ‘একজন সরকারি মুখপাত্রকে মিথ্যে দাবি করতে দেখলে খুব কষ্ট হয়।  তার থেকেও বেশি খারাপ লাগে যখন দেখি গণতন্ত্রে এই ধরণের কাজও  হয়’।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only