শনিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৯

'ভারতের ধর্মনিরপেক্ষতা কাঠামো নষ্ট করতেই এন আর সি'


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক বোলপুর:  ভারতবর্ষের ধর্মনিরপেক্ষ চরিত্র থাকবে, হিন্দু রাষ্ট্র হবে না।নাগরিকপঞ্জি নিয়ে এমনই আওয়াজ ওঠাল নাগরিক ফোরাম এগেনস্ট নামের একটি সংগঠন। বোলপুর রেলওয়ে ময়দানে সংগঠনের তরফ থেকে একটি সভার আয়োজন করা হয়। 

সেখানে সংগঠনের তরফ থেকে জানানো হয়,  নাগরিক পঞ্জী  লাগু হতে চলেছে মুসলিম, দলিত এবং নিম্ন মধ্যবিত্তদের টার্গেট করে। কারণ এই শ্রেণি হিন্দু রাষ্ট্র গঠনে বাধা দেবে। আর এদের কাছেই পুরানো দলিল বা নথি নেই। অতএব এদের এনআরসি-র আওতায় ফেলে দেশ থেকে তাড়াও কর্মসূচী আনা হচ্ছে।

কার্সিয়াং থেকে গত ১৫ মে “পাহাড় থেকে সাগর” নামে এক যাত্রা শুরু করে একটি সংগঠন। শনিবার তাদের নিয়েই বোলপুর ময়দানে সভার আয়োজন করা হয়। শিলিগুড়ি, দিনাজপুর, মালদা, মূর্শিদাবাদ হয়ে বোলপুর আসেন তাঁরা। এখানেই তাঁরা একটা কমিটি গঠন করেন। তাঁর আহ্বায়ক হন সমাজসেবী শৈলেন মিশ্র।

এই সভা মঞ্চ থেকে বক্তৃতা দেন জেএনইউ-র প্রাক্তন ছাত্র নেতা অনির্বাণ রায়, অর্থনীতিবিদ ও জেএনইউ-র প্রাক্তন ছাত্র নেতা প্রসেঞ্জিত বসু, লাভপুর সত্যনারায়ণ শিক্ষা নিকেতনের প্রধান শিক্ষিকা মনীষা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমূখ। তথ্য সমৃদ্ধ বক্তৃতায়  সকলের  বার্তায় উঠে আসে 'নো টু এন আর সি'।  

সভাপতি হিসেবে শৈলেন মিশ্র বলেন,  বিজেপি আর এস এসের একটা লক্ষ্য ভারতের ধর্ম নিরপেক্ষ চিত্র বা সাংবিধানিক কাঠামো নষ্ট করা। অতীতেও যে এই চেষ্টা হয়নি তা নয়। এই সংবিধান বিরোধী গোষ্ঠী চাইছে আমাদের দেশকে হিন্দু রাষ্ট্র বানাতে। আর সেদিক থেকে বাধা আসবে মুসলিম, দলিত এবং নিম্ন মধ্যবিত্তদের থেকেই। আর এদের নেই দলিল ও কাগজপত্র । তাই এদের তাড়াও। আসামেও ১৯ লক্ষ মানুষের অদিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। এই সংগঠনের তরফে একটি লিফলেট বিলি হয়।

সেখানে পরিষ্কার বলা হয়, বিজেপি যে বলছে, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আগত হিন্দুদের নাগরিকত্ব দেবে। সেটাও সহজ হবে না। কারণ তারা বলেছে, ওখানে যে তারা অত্যাচারিত, তার সবুদ দিতে হবে। যা আদপে কতটা বা কি করে সম্ভব তার উত্তর কে দেবে?

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only