শনিবার, ২ নভেম্বর, ২০১৯

কেন আবিষ্কার করা হয়েছিল প্লাস্টিক ব্যাগ?


ওয়েব ডেস্ক, পুবের কলম: প্লাস্টিক দূষণ আটকাতে নিত্যনতুন ক্যাম্পেন চলছে। প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ থেকেই শুরু হয়েছে দূষণ। প্লাস্টিকের কারণে মারা যাচ্ছে বহু সামুদ্রিকপ্রাণী। সমুদ্রকে দূষণমুক্ত রাখতে চলছে কর্মসূচী।

চিনা বিজ্ঞানীরা বিশ্বকে প্লাস্টিকমুক্ত করতে বিশেষ ধরণের ব্যাকটেরিয়াও আবিষ্কার করে ফেলেছেন।এগুলি প্লাস্টিক খেকো ব্যাকটেরিয়া হিসাবে পরিচিত। কিন্তু এত কিছুর পর আমাদের মনে প্রশ্ন উঠতে পারে কিসের জন্য আবিষ্কার হয়ে ছিল প্ল্যাটিকের ক্যারিব্যাগ?

সম্প্রতি আবিষ্কারকের ছেলের একটি সাক্ষাৎকারে এর কারণ ফাঁস হয়েছে। ১৯৩৩ সালে ইংল্যান্ডের নর্থউইচে একটি রাসায়নিক কারখানায় দুর্ঘটনাবসত পলিইথিলিন আবিষ্কার হয়। তবে, আবিষ্কৃত এই নয়া পদার্থ দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধে ব্রিটিশ সেনারা ব্যবহার করতে শুরু করেন। এর অনেক পরে ১৯৫৯ সালে সুইডেনের স্টেইন গুস্তাফ থুলিন নাম এক ইঞ্জিনিয়ার এই রাসায়নিক দিয়ে তৈরি করেন পলিথিন ব্যাগ বা প্ল্যাস্টিক ব্যাগ।গুস্তাফ থুলিনের ছেলে রাওন থুলিনের দাবি, এই প্লাস্টিক ব্যাগ দূষণ ছড়াতে নয়, উলটে দূষণমুক্ত পৃথিবী গড়তেই পলিথিন ব্যাগ তৈরি করেন তাঁর বাবা।

সেই সময় মানুষ কাগজের ব্যাগ ব্যবহার করত। তাতে অনেক বেশি কাঠের প্রয়োজন।ফলে উজার হতে শুরু হয় জঙ্গল। চাহিদাপূরণ করতে নির্বিচারে গাছ কাটা হতে থাকে। এছাড়া আরও একটি কারণও ছিল। কাগজের ব্যাগ একবারই ব্যবহার করা যায়, তাই বাজারে এই চাহিদা কমানো সম্ভব ছিল না। তাই, গুস্তাফ থুলিন একটি ব্যাগ একাধিকবার ব্যবহারের জন্য নয়া এই পদার্থ দিয়ে পলিথিন ব্যাগ আবিষ্কার করেন। যেটি একবার নয় একাধিকবার ব্যবহার করা যায়।তিনি এই ব্যাগটিকে এতটাই হলকা ও পাতলা ভাবে তৈরি করেন, যেটি সহজেই ভাঁজ করে জামার পকেটে রাখা যায়।

কিন্তু বর্তমানে জনসংখ্যা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বৃদ্ধি পেয়েছে প্ল্যাস্টিক ব্যাগের ব্যবহার। মানুষ সেটিকে একবার ব্যবহার করেই এদিক ওদিক ফেলে দেয়।তাতে বাড়ছে দূষণ। ফলে আগের সমস্যাটি থেকেই গিয়েছে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only