শুক্রবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৯

বিজেপির কার্যালয় অফিস ভঙলো বিজেপি, খেতে দিল না রান্না করা মাংসও



পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক: বৃহস্পতিবার খড়্গপুর বিধানসভা উপনির্বাচনের ফলাফল ঘোষনা হয়েছে৷ সেই ফলাফল ঘোষণার পর দেখা গেছে তিনটের কোনটাতেই বিজেপি খাতা খুলতে পারে। পাশাপাশি দেখা গেছে তিন জায়গাতেই জয়ী শাসক দল। বিজেপির গো হারা হার দেখে যতখানি তৃণমূলের সমর্থকরা উল্লাসিত, ঠিক ততখানি দুঃখিত বিজেপির কর্মীরা৷দিনভর দলের কর্মীদের বিভিন্নভাবে আক্রান্তও হতে হয়েছে৷


লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির ভালো ফল দেখে অনেকেই বিজেপিতে যোগ দিতে শুরু করেছিলন৷ এর জেরে বহু মামলা ও আক্রমনের মুখে পড়তে হয়েছিল বিজেপি কর্মী সমর্থকদের৷ নিজেদের অপ্রতিরোধ্য ধরে নিয়েই বিজেপি কর্মীরা এগোতে শুরু করেছিল৷ তারপরই বিধানসভার উপ নির্বাচনে ধ্বস৷



এই পরিস্থিতিতে ক্ষোভ ফেটে পড়লো পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরা বিজেপির জেলা কার্যালয়ে৷ এই কার্যালয়ে শুক্রবার দুপুরে মাংস রান্না চলছিল৷ সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির ঘাটাল জেলা সভাপতি অন্তরা ভট্টচার্য৷ দলের বেশ কিছু নেতা কর্মীদের নিয়ে কার্যালয়ে বসে থাকার সময়েই হটা করে বেশ কিছু পুরনো বিজেপি কর্মী সেখানে হাজির হয়৷ দলের নেতারা হারের পরেও মাংস রান্না করে ভুরি ভোজ করছেন দেখে চটে যায় সকলে৷ অতর্কিত আক্রমন শুরু করে৷ তারা বলেন, এই সমস্ত নেতারা পদের জন্য লড়াই করে৷ দলের জেতার থেকে নিজেদের আখের গুছাতেই ব্যাস্ত৷ অথচ আমরা দলের কাজে নেমে আক্রান্ত বা মামলা খেলে তার দায় আমাদেরই৷ এদের কারনেই দলের আজ এমন অবস্থার মুখোমুখি হতে হল
    
এই দাবি করেই ভাঙচুর চালানো শুরু করে৷ কার্যালয়ের ভেতর থেকে টেনে বের করে বিজেপির নেতাদের মারধোর করে অপর একদল বিজেপি কর্মী৷ বাইরে জেলা সভাপতির দাঁড়িয়ে থাকা গাড়ি ভাঙচুর করা হয়৷ কার্যালয়ের ভেতরে রান্না করা মাংস খাবার সব ফেলে দিয়ে কার্যালয়টিও ভেঙে দেওয়া হয়৷ উত্তেজনা চরমে উঠলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়৷ বিজেপির ঘাটাল সাংগঠনিক জেলা সহ সভাপতি বলেন, এটা বিজেপির অপর গোষ্ঠীর কাজ৷ পুরনো ক্ষোভ নিয়ে হামলা করেছে৷

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only