রবিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৯

শ্রীনগরে বিধায়ক হোস্টেলে তল্লাশি চালিয়ে আটক নেতাদের কাছ থেকে মোবাইল ফোন উদ্ধার করল পুলিশ


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক :  জম্মু-কাশ্মীরের শ্রীনগরে বিধায়ক হোস্টেলে তল্লাশি চালিয়ে সেখানে আটক নেতাদের কাছ থেকে পুলিশ ১২ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করেছে। আটক বন্দিরা মোবাইল ফোন ব্যবহার করছেন এমন তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল (শনিবার) পুলিশ বিধায়ক হোস্টেলে তল্লাশি চালালে ১২ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার হয়। ওই ঘটনায় বিধায়ক হোস্টেলে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

গত ৫ আগস্ট কেন্দ্রীয় সরকার জম্মু-কাশ্মীর থেকে সেরাজ্যের বাসিন্দাদের জন্য বিশেষ সুবিধা সম্বলিত ৩৭০ ধারা বাতিল করে দেওয়ার পরে সেখানে বিভিন্ন বিধিনিষেধ আরোপের পাশাপাশি রাজনৈতিক নেতাদের গৃহবন্দি অথবা আটক করা হয়েছে। এসময় বেশ কিছু নেতাকে সেন্টুর হোটেলে গৃহবন্দি রাখা হয়।

গত (রবিবার) ৩৪ জন নেতাকে সেন্টুর হোটেল থেকে বিধায়ক হোস্টেলে স্থানান্তরিত করা হয়। এসময়ে বিধায়ক হোস্টেলকে অস্থায়ী কারাগার ঘোষণা করা হয়। কারাগারের বিধি অনুযায়ী, এখানে থাকা লোকেরা মোবাইল ব্যবহার করতে পারবেন না।

প্রশাসনিক কর্তৃপক্ষের কাছে খবর আসে বিধায়ক হোস্টেলে আটক নেতাদের পক্ষ থেকে মোবাইল ফোন ব্যবহার করা হচ্ছে। ওই তথ্যকে গুরুত্ব দিয়ে শনিবার সেখানকার প্রত্যেক ঘরে তল্লাশি চালিয়ে পুলিশ প্রশাসন ১২ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে।

এবিষয়ে পুলিশ কোনও মন্তব্য করেনি। যদিও মোবাইল ফোন উদ্ধার হওয়ার পরে ওই বিধায়ক হোস্টেলের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

গত ৫ আগস্ট ৩৭০ ধারা বাতিলের পরে,  সেন্টুর হোটেলে ৩ মাসেরও বেশি সময় ধরে ৩৪ জন রাজনৈতিক নেতাকে গৃহবন্দি রাখা হয়েছিল। গত ১৭ নভেম্বর তাঁদেরকে বিধায়ক হোস্টেলে স্থানান্তরিত করা হয়।

সম্প্রতি জম্মু-কাশ্মীরের স্বরাষ্ট্র দপ্তরের তরফে এক নির্দেশিকা জারি করে মাওলানা আজাদ রোডের বিধায়ক হোস্টেলকে কারাগার হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে। এখানেই ন্যাশনাল কনফারেন্স, পিপলস কনফারেন্স, পিডিপি’র শীর্ষ রাজনীতিকরা বন্দি রয়েছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only