বুধবার, ৬ নভেম্বর, ২০১৯

কাশ্মীর ফেরত শ্রমিকদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করল রাজ্য সরকার


রবিবার ঘর ওয়াপসি শ্রমিকদের-ফাইল চিত্র

পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক, বীরভূম:এদিন আট জনের মধ্যে ৬ জন নয়াগ্রামের, ১ জন ভাগাইল ও একজন দাঁতুড়া মিলে মোট আটজনকে মিত্রপুর পঞ্চায়েতে ডেকে পাঠানো হয়।  যেহেতু তারা এই মুহূর্তে নিঃস্ব। তাই তাদের হাতে ব্লক অফিস থেকে ১৫ হাজার টাকা এবং মুখ্যমন্ত্রীর তহবিল থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকা দেওয়া হবে।

পাশাপাশি, নিজ এলাকায় যাতে তার স্বনির্ভর প্রকল্পে আয় করতে পারে তার জন্য এই আট শ্রমিককে এ্যাকশন প্ল্যানের মধ্যে ভরা হয়েছে। এলাকায় পোল্ট্রি ফার্ম খোলার জন্য তাঁদের আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে।রাজ্য সরকারের নির্দেশ মত বীরভূমের ৮ জন শ্রমিকের বাড়িতে দেখা করেন জনপ্রতিনিধি। তারপর তাঁরা মিত্রপুর পঞ্চায়েতে তাঁদের নথি নিয়ে হাজির হন। জমা দেন আধারকার্ড সহ অন্যান্য নথি।

পঞ্চায়েত প্রধান মর্জিনা বিগমের  স্বামী তথা তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি বাসারুজ্জামান মোল্লা (বকুল) বলেন, আজকে বিডিও সাহেবের কথা মত ওই আট শ্রমিকের কাছ থেকে নথি সংগ্রহ করে, ফর্ম পূরণ করে বিডিও সাহেবের কাছে জমা দিয়েছি।  বিডিও সাহেব উনাদের ১৫ হাজার টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা করবেন। উনাদের জব কার্ড আছে। এন আর জি এ স্কীম থেকে উনাদের পোল্ট্রী ফার্ম তৈরির জন্য এ্যকশন প্ল্যান তৈরি করা হল। পঞ্চায়েতে স্তরে মঞ্জুরির পর পোল্ট্রী সেডের জন্য ১৮ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।

মুরারই-২ বিডিও অমিতাভ বিশ্বাস বলেন,  রাজ্য সরকারের সমস্ত সুবিধা দেওয়া হবে। বাইরে না গিয়েও যাতে উনাদের সংসার চলে। সেই জন্য রাজ্যসরকার তাদের জন্য সমস্ত রকম ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বাংলা সংস্কৃতি মঞ্চের সভাপতি সামিরুল ইসলাম জানান,  শ্রমিকদের জন্য রাজ্য সরকারের কাছে আমাদের সংস্থার পক্ষ থেকে সমস্ত রকম ব্যবস্থার জন্য আবেদন রাখা হয়েছিল। এই ব্যবস্থা নেওয়ায় রাজ্য সরকারকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। শ্রমিক আলাউদ্দিন ইব্রাহিম, নইমুদ্দিন সেখেরা জানান, আমরা পঞ্চায়েতে গেছিলাম। আমরা রাজ্য সরকারকে আন্তরিক।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only