শুক্রবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৯

এনআরসি বাতিলের বিরুদ্ধে ও ‘ক্যাব’ বাতিলের দাবিতে অসম বিধানসভায় বিক্ষোভ


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক : অসমে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বাতিলের বিরোধিতা ও নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ‘ক্যাব’ বাতিলের দাবিতে অসম বিধানসভায় বিরোধী দলীয় বিধায়করা তুমুল বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (ক্যাব) এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জিকে (এনআরসি)কেন্দ্র করে প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্য বিধানসভা। 

এদিন অধিবেশনের কাজ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ‘ক্যাব’, ‘এনআরসি’, ‘অসম চুক্তি’ ইত্যাদি প্রসঙ্গে মুলতুবি প্রস্তাব দেন বিরোধী কংগ্রেস ও  এআইইউডিএফ বিধায়করা। তাঁদের দাবি,  যাবতীয় কার্যক্রম বাতিল করে নাগরিকত্ব বিল ও এনআরসি নিয়ে আলোচনা করতে হবে। কিন্তু স্পিকার হিতেন্দ্রনাথ গোস্বামী বিরোধীদের প্রস্তাবে সম্মত না হওয়ায় বিধানসভা থেকে ওয়াকআউট করে বাইরে এসে প্ৰতিবাদে সোচ্চার হন এআইইউডিএফ ও কংগ্রেস বিধায়করা। এসময় হাতে হাতে প্ল্যাকাৰ্ড নিয়ে এআইইউডিএফ এবং কংগ্রেস বিধায়করা বিধানসভার বাইরে মেঝেতে বসে, শুয়ে ‘ক্যাব’-এর বিরোধিতা করেন।  
মাওলানা আব্দুল কাদির কাশেমি 

‘ক্যাব’ প্রসঙ্গে আজ (শুক্রবার) অসম রাজ্য জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক ও এআইইউডিএফের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মাওলানা আব্দুল কাদির কাশেমি ‘পুবের কলম’ প্রতিবেদককে বলেন,  ‘ক্যাবের বিরোধিতা এজন্য আমরা করছি যে এর মূল কারণ হল এটি সংবিধান বিরোধী কাজ। ভারতবর্ষ একটা মহান দেশ। নির্যাতিত মানুষকে ভারত আশ্রয় দেবে তাতে আমাদের কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু নাগরিকত্ব দেওয়ার নামে ধর্মীয় বিভাজন কেন? সেটাতেই আমাদের আপত্তি।’  

বৃহস্পতিবার কংগ্ৰেসের বিধায়করা বেশ কয়েক ঘণ্টা বিধানসভার বাইরে মেঝেতে বসে, শুয়ে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের তীব্ৰ প্ৰতিবাদ করেন। ‘জাতিধ্বংসী নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বাতিল করো’, ‘এনআরসি বাতিল প্রক্রিয়া বন্ধ করো’, ‘এনআরসিকে বাতিল না করে একজন নিরপেক্ষ কর্মকর্তা কর্তৃক এনআরসির নবায়ন করো’, ‘অক্ষরে অক্ষরে রূপায়ণ করো অসম চুক্তি’, ‘এনআরসি ছুট ১৯ লাখ মানুষকে ভারতীয় নাগরিক হিসেবে চিহ্নিত করো’, ‘অসমিয়া  ভাষা-সংস্কৃতি ধ্বংস করা বন্ধ করো’, ‘ক্যাব-এর পক্ষাবলম্বনকারী মুখ্যমন্ত্রী হায়-হায়’, ‘অসম সরকার হায়-হায়’, ‘কোথায় গেল  বিজেপির জাতি মাটি ভিটে রক্ষা করার অঙ্গীকার’ ইত্যাদি স্লোগান দিয়ে প্ৰতিবাদী কংগ্রেসি বিধায়করা বিধানসভার মূল প্রবেশদ্বার চত্বর উত্তাল করে তোলেন। অসমের সাবেক মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈয়ের দাবি, নাগরিকত্ব বিলের বিরোধিতা না করলে অসমে যে সরকার চলছে তাঁরা জাত-মাটি-ভেটি বিক্রি করে দেবে। 

এদিনের প্রতিবাদী কর্মসূচিতে অসমের সাবেক মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈ, সাবেক মন্ত্ৰী ও বিধায়ক রাকিবুল হুসেন, অজন্তা নেওগ, বিধায়ক রাকিবুদ্দিন আহমেদ, আব্দুল হাই নাগরি, আবুল কালাম রশিদ আলম, ওয়াজেদ আলী চৌধুরী, কমলাক্ষ দে পুরকায়স্থ, রূপজ্যোতি কুর্মি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only