মঙ্গলবার, ২৬ নভেম্বর, ২০১৯

মানবিকতার জন্য: সন্তানকে খুইয়ে ১৫ লিটার মাতৃদুগ্ধ দান করলেন প্রসূতি!



পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক, নিউ ইয়র্ক: সদ্য ভূমিষ্ঠ হওয়া সন্তান হারানোর যন্ত্রনা একজন মা ছাড়া কেউ বোঝে না। জীবনের সবচেয়ে খারাপ অভিজ্ঞতা হল সন্তানকে হারানো।

মার্কিন শহর নেলসভেলির বাসিন্দা সেরা স্ট্রেঞ্জফিল্ড এমনই এক মানসিক যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন। এমন অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে গিয়েও অন্যান্য সদ্যজাতদের বাঁচাতে এগিয়ে এসছেন তিনি। কোনও নবজাতকের জন্য মাতৃদুগ্ধ তার পুষ্টির জন্য বিশেষ ভূমিকা রাখে। তাই, এই চিন্তাভাবনা থেকে নিজেই দান করলেন মাতৃদুগ্ধ। প্রায় ১৫ লিটার মার্তৃদুগ্ধ দান করেছেন তিনি।

সেরা গর্ভাবস্থাই জানতে পেরে ছিলেন, তাঁর গর্ভের বেড়ে ওঠা সন্তানের আয়ু বেশি দিন নেই। ট্রিসোমি-১৮ নামে একটি বিরল জেনেটিক রোগে আক্রান্ত সে। এর কারণে ভূমিষ্ঠ হলেই মারা যাবে তাঁর গর্ভস্থ সন্তান। 

তাই, চিকিৎসকরা তাঁকে গর্ভপাতের পরামর্শ দেন। কিন্তু চিকিৎসকদের সেই পরামর্শ প্রত্যাখ্যান করে ছিলেন সেরা।  সন্তানকে একটু একটু করে গর্ভে বেড়ে ওঠার অনুভূতি এবং তাকে প্রথমবার দেখার ইচ্ছা সেরাকে গর্ভপাত করানোর জন্য মন থেকে অনুমতি দিতে দেয়নি।

সেরার বক্তব্য, ঈশ্বর যখন তাঁর সন্তানের অতটুকুই আয়ু নির্ধারণ করেছেন তাহলে সেই বিধান অনুযায়ীই তিনি চলবেন। গর্ভস্থ সন্তানকে জন্ম দেবেন।

সেই মত সন্তানের জন্ম দেন সেরা। গত ৫ সেপ্টেম্বর তাঁর পুত্রসন্তান স্যামুয়েলের জন্ম হয়। কিন্তু মাত্র তিন ঘণ্টাই  পৃথিবীর আলো দেখে ছিল স্যামুয়েল।

সেরা বলেছেন, স্যামুয়েল ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর একবারই আমি তাঁকে কোলে নিয়ে ছিলাম। অক্সিজেন নল দেওয়া ছিল স্যামুয়েলের মুখে। কিছুক্ষণের মধ্যে তাঁর হৃদ কম্পন বেড়ে যায়। ঠিক মত অক্সিজেন নিতে পারছিল না সে। এই অবস্থাতেই মায়ের কোলেই পৃথিবী শেষ আলো দেখেছে স্যামুয়েল।

ভূমিষ্ঠ হওয়া সন্তানকে খুইয়ে ফেলার পর সেরা সিদ্ধান্ত নেন তার মাতৃদুগ্ধ তিনি দান করবেন। অন্যান্য শিশুদের জীবন ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য সন্তানহারা হয়েও ১৫ লিটার মাতৃদুগ্ধ দান করেন। সেরার এই সিদ্ধান্ত প্রশংসা কুড়িয়েছে।  


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only