শুক্রবার, ১ নভেম্বর, ২০১৯

বনগাঁয় বিজেপি'র বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগে তৃণমূলের ঝাঁটা মিছিল



পুবের কলম প্রতিবেদক, বনগাঁ : উত্তর ২৪ পরগণার বনগাঁয় বিজেপি’র বিরুদ্ধে সন্ত্রাস সৃষ্টির অভিযোগে তৃণমূলের পক্ষ থেকে ধিক্কার মিছিল করা-সহ পুলিশের কাছে বিভিন্ন অভিযোগে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের ওই মিছিলে পুরুষদের পাশাপাশি প্রচুর মহিলাও অংশ গ্রহণ করেন। মহিলা কর্মী-সমর্থকরা ঝাঁটা উঁচিয়ে ওই প্রতিবাদ মিছিলে শামিল হন। এদিন মিছিলে অংশ নেওয়া মানুষজন বিভিন্ন দাবি সম্বলিত প্ল্যাকার্ড বহন করেন।

বনগাঁ শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি ও পৌরসভার চেয়ারম্যান শঙ্কর আঢ্য বলেন,  ‘মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশীর্বাদে বনগাঁ শহরে আমরা যেভাবে একের পর এক উন্নয়ন করেছি সেই উন্নয়নকে স্তব্ধ করতে কতিপয় সমাজবিরোধী চেষ্টা করছে। বামফ্রন্টের আমলে তারা হার্মাদ  বাহিনী হিসেবে একসময় বনগাঁয় বিভিন্ন সন্ত্রাসমূলক কাজ করেছে। আজ তারা গেরুয়া শিবিরে ঢুকে গেরুয়া পোশাকে নিজেদেরকে বড় নেতা জাহির করে যত্রতত্র রাস্তা অবরোধ ইত্যাদি করে মানুষকে হয়রানি করার চেষ্টা করছে। তাদের বিরুদ্ধে মানুষ আজ পথে নেমেছে। বনগাঁ শহরে যাতে রাস্তা অবরোধের ফলে মানুষজন হয়রানির শিকার না হয় সেজন্য প্রশাসনকে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।’

তিনি বলেন,  ‘সম্প্রতি বিজেপি আশ্রিত সমাজবিরোধীরা বনগাঁ পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কর্মী নিরাপদ দাসের স্ত্রীকে আক্রমণ ও নিগ্রহ করে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত অভিযুক্তরা গ্রেফতার হয়নি। অবিলম্বে অপরাধীদের গ্রেফতার করতে হবে।’

শঙ্কর বাবু যেসব বেআইনি ই-রিকশা বনগাঁ শহরে চলাচল করছে, এদিন  তার বিরুদ্ধে প্রশাসনকে পদক্ষেপ গ্রহণ করার দাবি জানিয়েছেন। বনগাঁয় বিজেপি’র বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা বরদাস্ত করা হবে না বলেও তৃণমূল নেতা ও বনগাঁ পৌরসভার চেয়ারম্যান শঙ্কর আঢ্য মন্তব্য করেন।

অন্যদিকে, বিজেপি’র জেলা নেতা দেবদাস মণ্ডল তাঁদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। সম্প্রতি তাঁদের এক কর্মী আক্রান্ত হয়েছে এবং সেটি চাপা দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only