রবিবার, ১০ নভেম্বর, ২০১৯

রহমতুল্লিন আল আমিন বিশ্ব নবীর জন্ম দিবস গোটা জেলাজুড়ে যথাযথ মর্যাদার সাথে


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক :  মানবতার মুক্তির বার্তা নিয়ে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব ও শেষ নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ৫৭০ খ্রিস্টাব্দে রবিউল আউয়াল মাসের ১২ তারিখ সোমবার সৌদি আরবের মক্কায় জন্মগ্রহণ করেন। দিনটি উপলক্ষে মিলাদ মাহফিল, আলোচনা ও কোরআন পাঠসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজন করেছে সারা দেশের মুসলিম সম্প্রদায়। রহমতুল্লিন আল আমিন বিশ্ব নবীর জন্ম দিন উপলক্ষে গোটা রাজ্যের সাথে বীরভূম জেলায় আনন্দে মেতে উঠল আট থেকে আশি। এই উপলক্ষে বীরভূমের তিনটি মহকুমায় জুলুস বের হয়। রামপুরহাটের মাড়গ্রামের বুড়োপীরতলায় একত্রিত হন মোট ২৬ পাড়ার ছাত্রছাত্রী, ইমাম, মোয়াজ্জেন। সেখান থেকে ফতেহাদিয়াজদমের জুলুস বের হয়। দর্জিপাড়া, ব্লক মোড় হয়ে ফের বুড়োপীর তলায় শেষ হয়। একইভাবে রামপুরহাটের গান্ধীপার্কে জমায়েত হয় গান্ধীপার্ক ময়দানে।  সেখান থেকে পাঁচমাথা মোড়, বগটুই, ভাঁড়শালা মোড়, দেশবন্ধু রোড হয়ে পাঁচমাথাতে জমায়েত হয়।  সেখানে মমতাময় মানবিক স্টলের কর্ণাধার আব্দুর রেকিবের উদ্যোগে গনেশ দাস, সাগর কেশরীরা শোভাযাত্রায় আগত মানুষজন্দের হাতে শরবত তুলে দেয়।  বোলপুর ও সিউড়ি মহকুমা শহরেও একইভাবে একাধিক জলুস বের হয়। জেলার সরকারি হাসপাতালে বিশ্ব নবী দিবস উপলক্ষে  রোগীদেরকে ফল বিতরণ করেন এবং হাসপাতাল কর্মীদের মিস্টিমুখ করান। একইভাবে মুরারই থানায় বনরামপুর, সন্তোষপুর, রাজগ্রাম, আব্দুল্লাপুর, রুপরামপুর মোড়, মুরারই মাদ্রাসা রোড, ভাদিশ্বর মোড়, হিয়াত নগর , পাইকর মোড়, কাঁটাগড়িয়া, ইদ্রাকপুর সর্বত্র জুলুস কমিটির জাসনে ঈদ মিল দুন নবী বের হয়। এদিন বিভিন্ন জায়গায় জুলুস পরিক্রমার পাশাপাশি সন্ধ্যে ৬টায় ইসলামিক কুইজ ও ফাতেহাইয়াজদমের বিভিন্ন অনুষ্ঠান হয়। মাড়্গ্রাম নিমতলা পাড়া মসজিদের ইমাম কাজী গোলাম মুর্সেলিন বলেন, পাপ, ব্যভিচার, দাঙ্গা, অধর্ম, অন্যায়ে পরিপূর্ণ বিশ্বকে রক্ষা করতে শান্তির বানী নিয়ে মুক্তির দূত তিন ভূবনের নবী ৫৭০ খ্রীষ্টাব্দে আসেন। জাতি ধর্ম নির্বিশেষে  মানবজাতির ত্রাতা তিনি। তাঁর আদর্শে শান্তি, সম্প্রীতির বার্তা ও বাতাবরণ তৈরীর শপথ নিতে আমরা জুলুস বের করি। ইসলাম ধর্ম শান্তির পক্ষে সেই শান্তির দূতের কথায় বিভিন্ন জলসা ও অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে  উঠে আসবে গোটা জেলা জুড়ে। বীরভূম জেলার খুষ্টিগিরী দরগাহ শরীফ একটি প্রসিদ্ধ পূণ্যভূমি। এখানে প্রায় দুই হাজার নবী প্রেমিক পাড়ুই থানার বিভিন্ন গ্রাম প্রদক্ষিণ করে বিশ্বনবী হজরত মোহাম্মদ (সাঃ) এঁর আবির্ভাব দিবস পালন করলেন। সকলকে দুপুরের আহার করানো হয় খুষ্টিগিরী দরগাহ শরীফে। এখানে সন্ধ্যা থেকে বিশ্বনবীর জীবনাদর্শ ও মানবতার বিষয়ে আলেম ও চিন্তাবিদগণ বক্তব্য রাখবেন। আমন্ত্রিতদের মধ্যে রয়েছেন মেহের আলী দস্তেগীর কাদেরী, হাফেজ ফজলে করিম, মুফতি মোঃ নুরুল হুদা নূর প্রমুখ। হাজার হাজার শ্রোতা এই অনুষ্ঠান শ্রবণ করার জন্য ইতিমধ্যেই উপস্থিত হয়েছেন। রাত্রের অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলকে খাদ্য পরিবেশন করা হয়। সমগ্র অনুষ্ঠানটির পৃষ্ঠপোষক ছিলেন খুষ্টিগিরী দরগাহ শরীফের বর্তমান মোতাওয়াল্লী ও সজ্জাদানেশীন হজরত সৈয়দ শাহ মোহাম্মদ বজলে রহমান কেরমানী।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only