বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯

বন্দি দশায় অনিশ্চিয়তায় দিন কাটছে বাংলার দুই যুবকের! (ভিডিয়ো)




দেবশ্রী মজুমদার, রামপুরহাট 

সৌদি আরবে কাজ করতে গিয়ে অসহায় বাংলার যুবকেরা। এদিকে পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হওয়ায় বাড়ি ফেরার আশা দেখতে পাচ্ছে না তাঁরা। এক ভিডিও বার্তায় এসে পৌঁছেছে বাড়ির মানুষের কাছে। একই দশা দেশের আরও ২০ জন যুবকের। ছেলেকে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি নিয়ে দেশের বিদেশ মন্ত্রীমুখ্যমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, এমনকি সৌদির লেবার কমিশনার ও রাষ্ট্রদূতকে ইমেলে ও ডাক মারফৎ লিখিতভাবে ছেলেকে ফিরিয়ে দেওয়ার আবেদন জানান।  পরিবারের তরফে দিদিকে বলোএবং অনলাইনেও চিঠি পাঠানো হয়েছে।   কিন্তু কোন প্রচেষ্টা এখনও আশার আলো দেখতে পারেনি।  

জানা গিয়েছে, মুর্শিদাবাদের কান্দির জনৈক ব্যক্তির মাধ্যমে কাজের সন্ধানে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে সৌদি আরবে যান বীরভূমের মল্লারপুর গ্রামের ফিরোজ উদ্দিন। একই সঙ্গে যান মুর্শিদাবাদের খড়গ্রাম থানার হরিপুর গ্রামের চিরঞ্জিত বাগদি। তাদের সৌদি আরবে একটি কোম্পানিতে কাজ দেওয়ার কথা বলা হলেও বর্তমানে রিয়াদে শসা ও টমেটো পাকিংয়ের কাজে লাগানো হয়েছে। বছর দুয়েক ধরে তাদের উপর মানসিক অত্যাচার বেড়েছে বলে পরিবারের দাবি। এমনকি বাড়ি ফিরতে চাওয়ায় তাদের পাসপোর্ট ভিসা কেড়ে নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। 

রিয়াদ থেকে ফোনে ফিরোজ উদ্দিন জানান, তারা মরুভূমি এলাকায় রয়েছেন। তাদের ভারতীয় মুদ্রায় ২৫ হাজার টাকা বেতন দিত। বছর খানেক ধরে বেতন বন্ধ করে দিয়েছে। শুধু খাবার দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু আমি ফোনে কথা বলছি জানলে খাবারও বন্ধ করে দেবে। ভারতবর্ষে ২৫ জন একইভাবে আটকে রয়েছে। বাড়ি ফেরার কথা বলতেই মানসিক অত্যাচার বাড়িয়ে দেয় মালিক খালেক মিত্রিক।

ছেলের দুর্দশা জানতে পেরে চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ হন বাবা মুহাম্মদ জহিরুদ্দিন। কিন্তু কোন সারা না পেয়ে বিজেপির জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডলকে চিঠি করেন। শ্যামাপদবাবু বলেন, “ওই আবেদন পাওয়ার পরেই আমি রাজ্যের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর দফতরে চিঠি পাঠিয়ে দিয়েছি। বহু আবেদন-নিবেদনের পরও ছেলেকে ফিরে পাওয়ার কোন ইতিবাচক সারা পাননি পরিবার।

মা রওশনারা বিবি বলেন, “পরিবারের মুখের দিকে চেয়ে ভিন দেশে কাজ করতে গিয়েছিল ছেলে। প্রথম দিক থেকে মাসে মাসে টাকা পাঠাত। কিন্তু বছরখানেক ধরে কোন টাকা পাঠাচ্ছে না। ফলে বাড়িতে আর্থিক সংকট দেখা দিয়েছে। রামপুরহাট মহকুমা শাসক শ্বেতা আগরওয়ালকে এব্যাপারে ফোন করলে, যথারীতি ফোনের উত্তর দেননি তিনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only