সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯

পাখি-পড়া প্রশ্নোত্তরের নথি ফাঁস, মুখোশ খুলল চিন সরকারের!


পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক: সেমেস্টার পরীক্ষা শেষ, এবার ঘরে ফেরার পালা। পড়াশোনা থেকে আপাতত ছুটি নিয়ে হোস্টেল থেকে বাড়ি ফিরে কিছুদিন আরাম-আয়েশ করা যাবে, এমনই আশা নিয়ে বাড়িমুখো চিনের পড়ুয়ারা কিন্তু বাড়ি ফিরে যে পড়ুয়ারা মা-বাবা ও অন্যান্য সদস্যদের দেখা পাবেন, তেমন নিশ্চয়তা নেই। কারণ, বহু চিনা মানুষকে বন্দি করা হয়েছে ডিটেনশন সেন্টারে। বাড়ির সদস্যদের দেখা না পেলে স্বাভাবিকভাবে পড়ুয়ারা স্থানীয় নেতাদের এই ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন। তাঁদের প্রশ্নের উত্তরে কী বলা হবে? সেই উত্তর ছকে দিয়েছেন চিনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট সরকার! বাড়ি ফিরে আত্মীয়দের দেখা পেলে পড়ুয়ারা জিজ্ঞাসা করবে, আমার পরিবার কোথায়?

পাখি-পড়া উত্তর তৈরি আছে। বলা হবে, তোমাদের বাড়ির সদস্যদের সরকারি স্কুলে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। পড়ুয়ারা উত্তরে সন্তুষ্ট না হলে বলা হবে, তোমাদের বাড়ির সদস্যরা অপরাধী নয়। তবে তাঁরা সেই স্কুল থেকে আসতেও পারবেন না সেই খসড়ায় আছে বেশকিছু হুঁশিয়ারিও। যেমন, সরকারি আধিকারিকদের সঙ্গে পড়ুয়াদের ভালো আচরণ দেখে স্কুল থেকে তাঁদের পরিবারের সদস্যদের ছুটিও মিলতে পারে তাড়াতাড়ি 

অন্যদিকে, খারাপ আচরণ করলে ছুটি মিলতে দেরি হবে পড়ুয়াদের কোন প্রশ্নের কী উত্তর দেওয়া হবে, তা নির্ধারণ করে ৪০৩ পৃষ্ঠার একটি গোপন খসড়া তৈরি করা হয়েছে। সেই খসড়া ফাঁস হয়ে গিয়েছে একটি প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যমে। চিনের শিনজিয়াং প্রদেশে উইঘুর মুসলিমদের ওপর সরকার অমানবিক নিপীড়ন চালিয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরেই। বহু রাষ্ট্রনেতা ও বিশিষ্ট্য ব্যক্তি চিনা সরকার কর্তৃক মুসলিমদের ওপর নির্যাতনের সমালোচনা করেছেন। এবার সংবাদমাধ্যমে এভাবে মুখোশ খুলে যাওয়ায় চরম বেকায়দায় পড়েছে চিনের কমিউনিস্ট সরকার। গত তিন বছরে প্রায় ১০ লক্ষ মুসলিমকে ইন্টার্নমেন্ট ক্যাম্পে কিংবা কারাগারে বন্দি রাখা হয়েছে। চিন সরকার বারংবার দাবি করেছে, ধর্মীয় উগ্রপন্থা রুখতেই প্রশিক্ষণ শিবিরে মুসলিমদের সুন্দর জীবন গড়ার পাঠ দেওয়া হয় ৪০৩ পৃষ্ঠার এই খসড়া ফাঁস হয়ে যাওয়ায় শি জিনপিং পরিচালিত চিন সরকার মিথ্যা প্রতিপন্ন হল, তা বলাই বাহুল্য।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only