মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯

অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ, নোংরায় পরিপূর্ণ রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ চত্বর


পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক: যেখানে সব সময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার কথা। সেই স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চারিপাশে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি পঞ্চায়েত ও পুরসভার পক্ষ থেকে পরিষ্কার করার কথা। কিন্তু তারা কাজ করছে না। তাই এই অবস্থা। পুরসভার দাবি পয়সা নেই তাই লোক পাঠাতে পারছি না।

রামপুরহাট মহকুমা হাসপাতালকে স্বাস্থ্য জেলা হাসপাতাল থেকে এবার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে উন্নীত করা হয়েছে। কিন্তু পরিবেশের কোন উন্নতি হয়নি। আজও হাসপাতালের যত্রতত্র নোংরা ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। হাসপাতালে থেকে প্রতিদিন জমে থাকা নোংরা প্ল্যাস্টিকের প্যাকেটে ভরে হাসপাতালের মেডিক্যাল সুপারিন্টেনডেন্ট কাম ভাইস প্রিন্সিপ্যালের ঘরের নিচে ফেলে রাখা হচ্ছে। নিয়মিত পরিষ্কার না হওয়ায় সেখান থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। দূষিত হচ্ছে পরিবেশ।

ভাইস প্রিন্সিপ্যাল সুজয় মিস্ত্রি বলেন, “হাসপাতাল চত্বরের নোংরা পরিষ্কার করার কথা স্থানীয় পঞ্চায়েত কিংবা পুরসভার। সমস্ত হাসপাতালের ক্ষেত্রে একই নিয়ম। কিন্তু এখানে সমস্যা হচ্ছে হাসপাতাল রয়েছে দখলবাটি পঞ্চায়েতের অধীনে। তাদের পরিষ্কার করার মতো পরিকাঠাম নেই। রামপুরহাট পুরসভার নিয়মিত নোংরা তুলে নিয়ে যাওয়ার কথা। ক্ষমতা থাকলেও পরিষ্কার করছে না তারা।

রামপুরহাট পুরসভার চেয়ারম্যান অশ্বিনী তেওয়ারি বলেন, “দুই মাস সরকার থেকে ২৫ হাজার টাকা করে দিয়েছিল। সেই সময় আমরা পরিষ্কার করেছিলাম। কিন্তু টাকা না দিলে কিভাবে পরিষ্কার করব। কারণ তেলের দাম বেড়েছে। গাড়ি পাঠালেই খরচ রয়েছে। সেই খরচ কোথা থেকে পাব। তাই পরিষ্কার হচ্ছে না”। হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান, কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “বিধানসভা শেষ হলে সব পক্ষকে নিয়ে বসে সমস্যার সমাধান করা হবে”।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only