বুধবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

যৌন নিপীড়নের সঠিক তদন্তের সার্থে যাজকদের গোপনীয়তা সংক্রান্ত আইন তুলে দিলেন পোপ


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: গত বছর এক পর এক শিশু যৌন নিপীড়নের ঘটনায় যাজকরা অভিযুক্ত হতে থাকায় কলুষিত হয়ে ছিল চার্চের ভাবমূর্তি। যাজকদের গোপনীয়তা সংক্রান্ত আইন নিয়ে ঘটনায় তদন্ত করতে গিয়ে বেকায় পড়ে ছিল তদন্তকারীরা। তাই বেশ কয়েকটি ঘটনার মামলার ন্যায়বিচার মিলতে বহু বছর লেগে গিয়েছে।

সেই কথাকে মাথায় রেখে ভ্যাটিকানে যাজযদের গোপনীয়তা সংক্রান্ত আইন তুলে দিয়ে যাজকদের শিশু যৌন নিপীড়ন ঘটনা তদন্তের পথ সহজ করে দিলেন ক্যাথলিকদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস।

মঙ্গলবার এই আইন আমূল পরিবর্তন করা ঘোষণা দিয়েছেন পোপ। তিনি বলেন, যৌন-নিপীড়ন সংক্রান্ত অভিযোগ এবং বিচারের ক্ষেত্রে এই গোপনীয়তা বিধি আর প্রযোজ্য হবে না।

রোমান ক্যাথলিক চার্চ এতদিন যৌন নিপীড়নের ঘটনাগুলোর ক্ষেত্রে ভুক্তভোগীদের সম্মান রক্ষায় এবং সুরক্ষার জন্য গোপনীয়তা অবলম্বন করে আসছিল।
কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই যাজকরা তাদের অপকর্ম ঢাকতে গোপনীয়তা আইনের অপব্যবহার করতেন। ভুক্তভোগীরা এ আইনের কারণে মুখ খুলতে পারত না এবং কর্তৃপক্ষও অপরাধের ঘটনা তদন্ত করতে পারত না।

ফলে আইনটি নিয়ে তীব্র সমালোচনা হয়ে আসছিল। সমালোচকদের ভাষ্য, চার্চের কিছু কর্মকর্তা যৌন নিপীড়নের ঘটনার ক্ষেত্রে পুলিশের সঙ্গে সহযোগিতা এড়াতে গোপনীয়তা আইনকে কাজে লাগান।

গত ফেব্রুয়ারিতে ভ্যাটিকানের একটি সম্মেলনে চার্চের নেতারা এ আইনটি বিলুপ্ত করার আহ্বান জানিয়েছিলেন।

এখন পোপের ঘোষিত নতুন নিয়মে ভুক্তভোগীরা যৌন নিপীড়নের ঘটনা বেসামরিক কর্তপক্ষকে জানাতে পারবে। ক্যাথলিক চার্চের এ সংক্রান্ত নথিপত্র পুলিশ কিংবা অন্যান্য সিভিল লিগ্যাল অথোরিটির কাছে দিতে পারবে।

 তাছাড়া, এ ধরনের ক্ষেত্রে নিপীড়নের শিকার হওয়াদের নিরাপত্তা রক্ষায় তথ্যের গোপনীয়তাও রক্ষা করা হবে নতুন নিয়মে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only